• সিরি আ
  • " />

     

    ক্লাবের কাছ থেকে সমর্থন পান না, দাবি কন্তের

    কাগজে কলমে ইন্টার মিলানে এবার মৌসুমটা আগের চেয়ে ভালোই কেটেছে আন্তোনিও কন্তের। আগের মৌসুমের চতুর্থ স্থানে থেকে লিগ শেষ করা ইন্টারকে এবার দ্বিতীয় স্থানে নিয়ে এসেছেন তিনি। চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসের চেয়ে মাত্র ১ পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে মৌসুম শেষ করেছে ইন্টার। হোসে মরিনহোর অধীনে ২০০৯-১০ মৌসুমের ট্রেবলজয়ী ইন্টারের পর প্রথমবারের মতো এক মৌসুমে ৮০-র বেশি পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পেরেছে কন্তের দল। কিন্তু কন্তে জানেন, সিরি আ এনে দিতে পারাটা তার জন্য ব্যর্থতাই। ক্লাবের কাছ থেকে কোনও সমর্থন পাচ্ছেন না বলে এবার বোমা ফাটিয়েছেন এই ইতালিয়ান।

     


    আটালান্টার বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে মৌসুম শেষ করেছে ইন্টার। আর সেই ম্যাচের পরেই ক্লাবের কাছ থেকে কোনও সমর্থন না পাওয়ার কথা জানিয়েছেন কন্তে, “আমার এবং খেলোয়াড়দের কাজের কোনও স্বীকৃতি নেই। ক্লাবের কাছ থেকে আমাদের মোটেই সমর্থন দেওয়া হয় না। আমাদের সবদিকেই উন্নতি করতে হবে, মাঠের বাইরের বিষয়গুলোতেও উন্নতির প্রয়োজন আছে। একটি বড় ক্লাবের উচিৎ খেলোয়াড়দের সংরক্ষণ করা। আমরা মৌসুম শেষে এগুলো নিয়ে আলোচনা করব। আমি ক্লাব প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করতে চাই, তিনি এখন চায়নাতে আছেন।”

    সমালোচকদের উদ্দেশ্যে কন্তের বার্তা, “মানুষের কখনোই ঝোঁকের মাথায় কিছু করা উচিৎ নয়। ভালো সময়ের মতো খারাপ সময়ে সাথে থাকতে হবে। তবে আমার বলতে খারাপ লাগছে, তবে ইন্টারে এমনটা হয়নি।”

    অবশ্য ক্লাবের ওপর কন্তের রাগ ঝাড়ার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। গত নভেম্বরেও দুর্বল পরিকল্পনার জন্য ক্লাবকে দায়ী করেছিলেন কন্তে। সংকুচিত স্কোয়াড নিয়ে সিরি আ এবং চ্যাম্পিয়নস লিগে ভালো করা সম্ভব নয় বলেও তখজন মন্তব্য করেছিলেন তিনি। ক্লাব এরপর জানুয়ারিতে বেশকিছু সাইনিং করে শান্ত করেছিল কন্তেকে।

    সিরি আ শেষ হলেও ইউরোপা লিগে এখনও টিকে আছে ইন্টার মিলান। শেষ ষোলোয় গেটাফের বিপক্ষে খেলবে দলটি।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন