• লা লিগা
  • " />

     

    আমি সবসময় সুয়ারেজকে সম্মান করেছি: কোমান

    বার্সেলোনার সাবেক স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ চোখের জলে ক্লাব ছেড়েছেন। বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে পরিষ্কার ভাষায় বলেছেন নতুন কোচ রোনাল্ড কোমান তাকে দলে চাননি, কোমানের পরিকল্পনায় ছিলেন না তিনি। তবে সুয়ারেজের বিদায়ের পর কোমান বললেন, তার সঙ্গে সুয়ারেজের কোনো সমস্যা ছিল না, তিনি সবসময় সুয়ারেজকে সম্মান করেছেন, সুয়ারেজকে বিদায় করার সিদ্ধান্ত ছিল ক্লাবের।

    ২০১৪ সালে লিভারপুল থেকে বার্সেলোনায় এসেছিলেন সুয়ারেজ। ন্যু ক্যাম্পে ছয়টি সফল মৌসুম কাটিয়ে লা লিগার আরেক জায়ান্ট অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন তিনি। তবে বার্সেলোনার ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতাকে যেভাবে স্বল্প সময়ের নোটিশে বিদায় করেছে ক্লাবটি, সেটা অনেকের কাছে ভালো ঠেকেনি। বার্সা কিংবদন্তি এবং অধিনায়ক লিওনেল মেসিও সুয়ারেজের উদ্দেশ্যে বিদায়ী বার্তায় ক্লাবের সমালোচনা করেছেন।


    আর বার্সায় সুয়ারেজের সময় ফুরিয়ে এসেছে, এই বার্তাটি সুয়ারেজের কাছে পৌঁছানোর দায়িত্ব ছিল কোমানের ওপর। তিনিই সুয়ারজকে জানিয়েছেন যে, নতুন মৌসুমে বার্সায় তার পরিকল্পনায় নেই তিনি। তবে সুয়ারেজের বিদায়ের পর কোমান যেন অনেকটা নিজের ইমেজ রখার চেষ্টা করে বললেন, “এই সিনেমায় আমাকে খলনায়ক মনে হচ্ছে। তবে এটি সত্যি নয়। প্রথম দিন থেকে ব্যক্তি এবং খেলোয়াড় সুয়ারেজকে আমি সম্মান করেছি। আমি সবসময়ই বলেছি, সে ক্লাবে থাকলে অবশ্যই স্কোয়াডের অংশ হয়ে থাকবে, তবে আমার জন্য তাকে বেশি গেমটাইম দেওয়া কঠিন হবে। আমি এই কথা ক্লাবকেও জানিয়েছি।”

    “তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্লাব। আমি কোচ হিসেবে আসার আগেই ক্লাব অনেক কিছু পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিল। ক্লাবে অনেক তরুণ খেলোয়াড় রয়েছে। সুয়ারেজের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আমি একা নেইনি, ক্লাবও সঙ্গে ছিল।”

    সুয়ারেজের উদ্দেশ্য মেসির বিদায়ী বার্তায় ক্লাবের প্রতি ক্ষোভের বিষয়টিকে বড় করে দেখছেন না কোমান, “একজন বন্ধু যার সঙ্গে আপনি ক্লাবে অনেক বছর খেলেছেন, সে ক্লাব ছেড়ে গেলে একজন খেলোয়াড়ের খারাপ লাগতেই পারে, এটা স্বাভাবিক। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, লিও অনুশীলন করছে, খেলছে। অনুশীলনে সে সবার জন্য দৃষ্টান্ত তৈরি করছে। আমার কাছে একদিনও মনে হয়নি যে কোনো কিছুর জন্য কষ্ট পাচ্ছে।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন