• লা লিগা
  • " />

     

    যা করেছি, ক্লাবের ভালোর জন্যই করেছি : মেসি

    লিওনেল মেসির দলবদলের নাটকে নিশ্চিতভাবেই বার্সেলোনার ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। ক্লাবে থেকে যাওয়ার পরও বোর্ডের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে চলেছেন মেসি, সুয়ারেজের বিদায়ের সময়ও ক্লাব কর্তৃপক্ষকে একহাত নিয়েছেন এই বার্সা কিংবদন্তি। তবে দিয়ারিও স্পোর্তের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে মেসি পরিষ্কারভাবে বলেছেন, যা করেছেন, ক্লাবের ভালোর জন্যই করেছেন।


    চ্যাম্পিয়নস লিগে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে বার্সেলোনার ‘ঐতিহাসিক’ হার দিয়ে ঘটনার সূত্রপাত। হারের পর থেকেই মেসির ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন জোরালো হয়। ২৫ আগস্ট ক্লাব বরাবর ব্যুরোফ্যাক্স পাঠিয়ে সেই গুঞ্জনের সত্যতা নিশ্চিত করেন মেসি। এরপর দশ দিনের দলবদল নাটক চলে বার্সেলোনা এবং মেসির মধ্যে। ক্লাব সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগ এনে তাকে ‘দুর্যোগ’ হিসেবে উল্লেখ করেন মেসি। আর প্রিয় ক্লাবকে আদালতে টেনে নিতে ন চাওয়া মেসি চুক্তির বাকি এক বছর বার্সাতেই থাকার সিদ্ধান্ত নেন।

    এরপর অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন, প্রীতি ম্যাচ খেলেছেন। যখন সবার মনে হচ্ছিল, সব ঠিক হয়ে গেছে, তখনই সুয়ারেজের ক্লাব ছাড়ার সময় আরেক দফা বার্সা বোর্ডকে নিশানা বানান মেসি। সুয়ারেজকে যেভাবে বিদায় নিতে হয়েছে সেটি মোটেই রোচেনি তার, তবে মেসি সেটা মেনে নিয়েছেন এই বলে যে, ‘কোনোকিছুই এখন আর আমাকে অবাক করে না।’

    স্পোর্তের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে গত কয়েক মাস ধরে চলা পুরোনো ঘটনাগুলো নিয়েই আরও একবার কথা বলেছেন মেসি। বলেছেন যদি কোনো ভুল করেও থাকেন সেটা ক্লাবের কল্যাণের জন্যই করেছেন, “অনেক মতভেদ হয়েছে, আমি সবকিছুর ইতি টানতে চাচ্ছি। আমাদের সবার এক হয়ে কাজ করতে হবে এবং মনে বিশ্বাস রাখতে হবে যে, সেরা সময় আসবে। আমি যদি কোনো ভুল করে থাকি সেটার দায় নিতে প্রস্তুত আমি, তবে যাই করেছি বার্সেলোনার উন্নতির জন্যই করেছি।”

    “আমাদের সব সমর্থকদের একটা বার্তা দিতে চেয়েছিলাম আমি। যদি তাদের কেউ কখনো আমার কোনো কাজে বিরক্ত হয়ে থাকেন, আমি শুধু এটাই বলব যে, আমি ক্লাবের ভালো চিন্তা করেই সব করেছি। আবেগ, আগ্রহ আর অনুপ্রেরণার সমন্বয়ই লক্ষ্য অর্জনের একমাত্র উপায়।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন