• লা লিগা
  • " />

     

    বদলি ভিনিসিয়াসের গোলে ভায়াদোলিদ-বাধা তুচ্ছ করল রিয়াল মাদ্রিদ

    ফুল টাইম

    রিয়াল মাদ্রিদ ১ - ০ ভায়াদোলিদ


    ঘরের মাঠে মৌসুমের প্রথম ম্যাচ জয় দিয়েই শুরু করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। তবে ভায়াদোলিদের বিপক্ষে জয় পেতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। ম্যাচের শুরু থেকেই গোলের বেশ কিছু সুযোগ পেলেও বল জালে জড়াতে পারছিলেন না রিয়াল ফরোয়ার্ডরা। শেষ পর্যন্ত ৬৫ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা ভিনিসিয়াসে কপাল খুলেছে রিয়ালের। তার ঠান্ডা মাথার ফিনিশে জয় নিশ্চিত হয়েছে লস ব্লাঙ্কোদের।


    এস্তাদিও আলফ্রেডো ডি স্টেফানোতে ভায়াদোলিদের বিপক্ষে শুরু থেকেই বল দখল, ম্যাচের গতিপথ নিয়ন্ত্রণসহ সব দিক দিয়েই এগিয়ে ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু হোক সেটা ভায়াদোলিদের রক্ষণভাগের দৃঢ়তায় অথবা রিয়ালের আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় প্রথমার্ধ শেষে ম্যাচ গোলশুন্য অবস্থাতেই ছিল। এই অর্ধে রিয়াল মাত্র একটি শট লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে। ম্যাচের ১০ মিনিটে মার্সেলোর শট ভায়াদোলিদ ডিফেন্ডার সানচেজ ব্লক করার পর গোলের সামনে বল পান ভালভার্দে। তবে ডান দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে দুর্দান্ত এক সেভে তার শট ঠেকিয়ে দেন রবার্তো।

    টানা দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম একাদশে সুযোগ পাওয়া লুকা ইয়োভিচ গোলের দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন ১৭ মিনিটে। গতিময় একটি প্রতি-আক্রমণ থেকে ভালভার্দের স্কয়ার একেবারে গোলের সামনে পান ইয়োভিচ। তবে তার শট গোলের বাইরে দিয়ে চলে যায়। বেনজেমা এবং ইয়োভিচকে এই নিয়ে টানা দুই ম্যাচে আক্রমণে খেলালেন জিনেদিন জিদান। তবে দুজনের মাঝে আক্রমণের ক্ষেত্রে তেমন কোনো সমন্বয় চোখে পড়েনি এবারও।

    দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ম্যাচে এগিয়ে যাওয়ার সেরা সুযোগটি এসেছিল রিয়াল মাদ্রিদের সামনে। ৪৭ মিনিটে লুকা মদরিচের কর্নার থেকে সবার চেয়ে উঁচুতে লাফিয়ে উঠে দারুণ হেড করেছিলেন ইয়োভিচ, তবে সমান দক্ষতায় ডান দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে তার সেই প্রচেষ্টা রুখে দেন রবার্তো, ফিরতি প্রচেষ্টায় কাসেমিরোর শট ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। ৫৪ মিনিটে সুযোগ এসেছিল ভায়াদোলিদের সামনেও। স্ট্রাইকার ওয়াইসমান মধ্যমাঠ থেকে বল নিয়ে এসে বক্সের সামনে থেকে নিজেই শট নিয়েছিলেন, তবে থিবো কোর্তোয়াকে পরাস্ত করতে পারেননি।

    শেষ পর্যন্ত ইয়োভিচের বদলি হিসেবে নামা ভিনিসিউস জুনিয়রের গোলেই ম্যাচে এগিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। ৬৫ মিনিটে ভায়াদোলিদ রক্ষণের ভুলে বক্সের সামনে বল পেয়ে যান ফেদে ভালভার্দে, সেখান থেকে বেনজেমার উদ্দেশ্যে পাস দেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। তবে বেনজেমার কাছে যাওয়ার আগেই ভায়াদোলিদ ডিফেন্ডারদের পায়ে লেগে বলের গতিপথ পরিবর্তন হয়ে সেটা আসে ভিনিসিয়াসের পায়ে। সেখান থেকে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে দলকে এগিয়ে দিয়েছেন তিনি।

    মাদ্রিদের গোলের মিনিট তিনেকের মধ্যেই গোল শোধের সুযোগ পেয়েছিল ভায়াদোলিদ। তবে আবারও মাদ্রিদের ত্রাতা হয়ে আসেন কোর্তোয়া। রাউল গার্সিয়ার জোরালো শট এক হাতে ঠেকিয়ে দেন তিনি।

    ৮২ মিনিটে ভায়াদোলিদ গোলরক্ষক রবার্তোর ভুলে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল রিয়াল। তবে মদরিচের শটটি গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসে। তাই আর ব্যবধান বাড়ানো হয়নি রিয়ালের। এই জয়ে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে রিয়াল।

    রিয়াল মাদ্রিদ একাদশ

    কোর্তোয়া, রামোস, ভারান, মার্সেলো, অদ্রিওজোলা, মডরিচ, কাসেমিরো, ভালভার্দে, ইসকো, ইয়োভিচ, বেনজেমা 

    ভালাদোলিদ একাদশ

    রবার্তো, হারভিয়াস, ব্রুনো, সানচেজ, কারনেরো, প্লানো, মিশেল, এমেতেরিও, ওয়ালদো, ওরেলানা, ওয়াইসমান

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন