• সিরি আ
  • " />

     

    ' আমি করোনা-ভাইরাসের নিয়ম ভাঙিনি'- ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রীকে রোনালদো

    ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো করোনা-ভাইরাস প্রটোকল ভেঙেছেন, ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রী ভিনসেঞ্জও স্পাদাফোরা পরোক্ষভাবে এই অভিযোগ তুলেছিলেন। সেই অভিযোগের জবাবে ইনস্টাগ্রামে একটা ভিডিও পোস্ট করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। অভিযোগটা খন্ডন করেছেন, এবং নাম উল্লেখ না করে ক্রীড়ামন্ত্রীকে মিথ্যার জন্য অভিযুক্ত করেছেন।

     

    পর্তুগালের হয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সময় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন রোনালদো। শুরুতে নিজ দেশেই কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা ছিল তার। কিন্তু রোনালদো এরপর ঠিক করেন, বিশেষ বিমানে ইতালিতে ফিরবেন। পরে অ্যাম্বুলেন্সে পৌঁছেছেন তুরিনে। এরপরেই ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন, রোনালদো স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন করেছেন।

    রোনালদো এরপর ইন্সটাগ্রামে বড় একটা বার্তায় এই অভিযোগ খন্ডন করেছেন, ‘আমি শুনেছি একজন ভদ্রলোক অভিযোগ করেছেন, আমি নাকি স্বাস্থ্যবিধি মানিনি। এই অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন ও মিথ্যা।’

    রোনালদো বলছেন, নিয়ম মেনেই ইতালিতে এসেছেন, ‘আমি সবধরনের প্রটোকল ফলো করছি এবং সামনেও ফলো করব। তবে বিবেকের দিক দিয়ে আমি পরিষ্কার, আমি কোনো নিয়ম ভাঙিনি। ওরা বলছে আমি নাকি ইতালিতে এসে নিয়ম ভেঙেছি, কিন্তু আমি এরকম কিছু করিনি। পর্তুগাল ছেড়ে যাওয়া, এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ওঠা, তুইনে আসা এই সময়ের মধ্যে আমি কারও সংস্পর্শে আসিনি।’

    ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রী পরে আরেক সাক্ষাৎকারে নিজের কথা থেকে সরে আসেননি, ‘খ্যাতি আর প্রভাবের জন্য কোনো খেলোয়াড়ের নিয়ম কানুনকে বুড়ো আঙুল ও দাম্ভিকতা দেখানো উচিত নয়। আমি এই ব্যাপার নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। এটা এখানেই থেমে যাক। করোনা ভাইরাসে যারা ভুগছে তারা সবাই সেরে উঠুক।’

    এই মুহূর্তে তুরিনে নিজের বাসায় আইসোলেশনে আছেন রোনালদো। কোনো লক্ষণ নেই তার, শারীরিকভাবেও সুস্থ আছেন।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন