• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কোভিড-১৯ এর প্রভাব : টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের স্থগিত সিরিজে পয়েন্ট ভাগাভাগির ভাবনা আইসিসির

    করোনার কারণে থমকে যাওয়া বিশ্ব ক্রিকেট এখনো আগের গতি ফিরে পায়নি। বেশ কয়েকটি ফ্রাঞ্চাইজি লিগ এবং কিছু দ্বিপাক্ষিক সিরিজ অনুষ্ঠিত হলেও স্বাভাবিক অবস্থা ফিরতে এখনো ঢের সময় বাকি। এমন অবস্থায় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের চলতি মৌসুমের বিষয়ে একটি সিদ্ধান্তে আসতে চায় আইসিসি। সেজন্য আইসিসির ক্রিকেট কমিটি আগামী মাসে বৈঠকে বসবে। তার আগে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ভাগ্য নির্ধারণের জন্য দুটি বিকল্পের কথা ভাবছে সংস্থাটি। করোনার কারণে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অনেকগুলো সিরিজ বাতিল হয়ে গেছে, সেগুলো পরবর্তীতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সময়সূচীর মাঝে আয়োজন করা সম্ভব হবে কিনা সেটি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হওয়াতেই বিকল্প পদক্ষেপের কথা ভাবছে আইসিসি।

    দুটি বিকল্পের একটি হচ্ছে, পয়েন্ট ভাগাভাগি করা। যেসব বাতিল হয়ে গেছে বা আর হওয়ার সম্ভাবনা নেই সেগুলোর পয়েন্ট ভাগাভাগির কথা ভাবছে আইসিসি। আর সেটি না হলে মার্চ পর্যন্ত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে যেসব সিরিজ অনুষ্ঠিত সেগুলোকেই শুধু গোনায় ধরে সিদ্ধান্তে আসতে চায় তারা। আগামী ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-নিউজিল্যান্ড সিরিজ দিয়ে আবারও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা শুরু হবে। তার আগেই সিদ্ধান্ত নেওয়াটা আইসিসির জন্য জরুরী। আগামী বছরের মার্চে শেষ হবে আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ।

    এখন পর্যন্ত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে যে সিরিজগুলো পিছিয়ে গেছে বা বাতিল হয়েছে সেগুলো হচ্ছে, পাকিস্তান-বাংলাদেশ (১ টেস্ট), বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া (২ টেস্ট), শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ (৩ টেস্ট), শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড (২ টেস্ট), ওয়েস্ট ইন্ডিজ-সাউথ আফ্রিকা (২ টেস্ট) এবং বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড (২ টেস্ট)।

    বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের কাঠামোটি এমনিতেই বিতর্কিত, কারণ এই টুর্নামেন্টে সব দল সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলার সুযোগ পায় না। আর এর মধ্যে এবার করোনার কারণ পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে উঠেছে। তবে আইসিসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে যেভাবেই হোক, দুটি বিকল্পের যেকোনো একটি ব্যবহার করে জটিলতা নিরসন করা হবে। তারপর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দুই দলের মধ্যে ফাইনালের মাধ্যমে পর্দা নামবে এই টুর্নামেন্টের।

    পয়েন্ট ভাগাভাগির বিষয়টি অবশ্য টুর্নামেন্টের নিয়মের মধ্যেই পড়ে। কারণ আগেই বলা আছে, কোনো ম্যাচ আয়োজন করা গেলে সেটিকে ড্র হিসেবে ধরে নেওয়া হবে। তাই করোনার কারণে বাতিল হয়ে যাওয়া ম্যাচগুলো নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা সেই নিয়ম ব্যবহার করেই সমাধান করা যায়। বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ৩ ম্যাচ খেলে ৩ টিতেই হেরেছে। কোনো পয়েন্ট ছাড়া নয় দলের এই টুর্নামেন্টের পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে রয়েছে বাংলাদেশ।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন