• লা লিগা
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    যাওয়ার আগে সুপার লিগের পক্ষে বার্সার ভোট দিয়ে গেছেন বার্তোমেউ

    অনেক সমালোচনার পর শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনার সভাপতির পদ ছেড়েছেন ইয়োসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। তবে সেই পদ ছাড়ার আগে গুরুত্বপূর্ণ একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি, ইউরোপিয়ান সুপার লিগে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে বার্সেলোনার পক্ষ থেকে সম্মতি দিয়ে গেছেন।

    মঙ্গলবার সভাপতির পদ থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার সময় ইউরোপিয়ান সুপার লিগে যোগদানের বিষয়টিও সামনে আনেন তিনি। বিষয়টি এখন ক্লাব সদস্যের অ্যাসেম্বলিতে অনুমোদনের জন্য যাবে। এছাড়া বার্তোমেউ ফিফার অধীনে ক্লাব বিশ্বকাপের একটি নতুন ফরম্যাটের বিষয়েও সম্মতি দিয়েছেন।

    গত সপ্তাহে স্কাই স্পোর্টসের এক বিশেষ প্রতিবেদনে ইউরোপের এলিট ক্লাবগুলোর ইউরোপিয়ান প্রিমিয়ার লিগ নামের একটি টুর্নামেন্ট করার পরিকল্পনার খবর প্রকাশিত হয়। সেখানে ইংল্যান্ড, স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স এবং জার্মানির শীর্ষ ক্লাবগুলো মিলে একটি রাউন্ড রবিন লিগ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বলে উল্লেখ করা হয়। সেই টুর্নামেন্টে ফিফার সমর্থন রয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান জেপি মরগান সেখানে ৬ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে চায় বলেও জানানো হয়েছিল সেই প্রতিবেদনে। রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ এবং ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোকে সেই টুর্নামেন্টের স্বপ্নদ্রষ্টা বলা হচ্ছে। ইউয়েফা অবশ্য বিবৃতি দিয়ে কঠোরভাবে সেই টুর্নামেন্টের বিরোধিতা করেছে।

    বার্সেলোনায় নিজের শেষ সংবাদ সম্মেলনে বার্তোমেউ সেই লিগে অংশগ্রহণের জন্য বার্সেলোনা সম্মতি দিয়েছে বলে জানান, “আমি একটি দারুণ খবর দিচ্ছি, গতকাল (সোমবার) আমরা ভবিষ্যতে ইউরোপিয়ান সুপার লিগে অংশগ্রহণের ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছি। এর ফলে ভবিষ্যতে ক্লাবের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে। আর আমরা ক্লাব বিশ্বকাপের নতুন ফরম্যাটের প্রস্তাবও গ্রহণ করেছি।”

    বার্তোমেউর এই ঘোষণার পরই স্প্যানিশ ফুটবল প্রধান হাভিয়ের তেবাস এক টুইটে এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন, “বার্সেলোনায় নিজের শেষ দিনে বার্তোমেউ একটি দুর্বল এবং কাল্পনিক প্রতিযোগিতায় ক্লাবের অংশগ্রহণের বিষয়ে সম্মতি দেওয়ার কথা জানিয়েছেন, এটাই তাদের ধ্বংসের কারণ হবে। ফুটবল শিল্প সম্পর্কে তার অজ্ঞানতার স্মারক হয়ে থাকবে এই সিদ্ধান্ত। সাফল্য এবং অনেক ভুল নিয়ে একজন সভাপতির দুঃখজনক সমাপ্তি।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন