• সিরি আ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    ইব্রার জোড়া গোলে নাপোলি-দুর্গ জয়ের পরও উদ্বেগ মিলানের


     

    এসি মিলানে নতুন ইব্রাহিমোভিচের বিস্ময়যাত্রা চলছেই। এবার ইব্রার জোড়া গোলের কল্যাণে এমন একটা কীর্তি করেছে এসি মিলান, এই শতাব্দীতে যেটা করতে পেরেছে মাত্র একবার। তবে এমন একটা রাতের পরও ইব্রা একটু দুশ্চিন্তায় থাকবেন। ম্যাচের ১১ মিনিট বাকি থাকতে যে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছেন।

    নাপোলির মাঠ এই শতাব্দীতে মিলানের জন্য বরাবরই একটা কঠিন ধাঁধা। সর্বশেষ এই মাঠে মিলান জয় পেয়েছিল ২০১০ সালে। কাকতালীয়ই বটে, সেই ম্যাচেও গোল পেয়েছিলেন ইব্রা। কালকের ম্যাচেও প্রথম গোলের জন্য খুব বেশিক্ষণ সময় নেননি। দারুণ একটা প্রতিআক্রমণ থেকে ফারপোস্টে বলটা জালে ঠেলে দিতে সমস্যা হয়নি ইব্রার। তবে নিজের জাত চেনানো গোলটা করেছেন ৫৩ মিনিটে। বাঁদিক থেকে উড়ে আসা ক্রসটা বেশ কিছুটা দূরে থেকে দুর্দান্ত এক বুলেট হেডে জড়িয়ে দিয়েছেন জালে। ৬ ম্যাচে ১০ গোল হয়ে গেল ইব্রার এবারের সিরি আ মৌসুমে। সিরি আ তে টানা আট ম্যাচে গোল করলেন ইব্রা। কে বলবে তার বয়স কদিন পর ৪০ হবে? সিরি আ তে ৮ ম্যাচ শেষে ১০ গোল করা দ্বিতীয় খেলোয়াড় হলেন ইব্রা। এর আগে করেছিলেন ১৯৪২-৪৩ মৌসুমে সিল্ভিও পিওলা।

    তবে ইব্রার দুই গোলের পর ফিরে আসার একটা চেষ্টা করেছিল নাপোলি। ড্রিস মার্টেনস গোল করে ব্যবধান কমিয়েছিলেন। কিন্তু এর পরেই টিমোথি বাকায়াকো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে দশ জনের দলে পরিণত হয় নাপোলি। উল্টো জা পিয়েরে হাজের গোলে ম্যাচের শেষ দিকে ৩-১ গোলের জয় নিশ্চিত করে মিলান। ২০ পয়েন্ট নিয়ে তাই মিলান রইল সবার ওপরেই, দুইয়ে থাকা সাসসুওলোর চেয়ে দুই পয়েন্ট এগিয়ে।

    তবে তার চেয়ে বড় দুঃসংবাদ, ম্যাচের ১১ মিনিট বাকি থাকতে ইব্রার মাঠ ছেড়ে যাওয়া। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট পেয়েই মাঠ ছেড়েছেন, পরে তাকে আইসব্যাক পায়ে দিয়ে বসে থাকতে দেখা গেছে ডাগআউটে। মিলানের মূল কোচ স্টেফান পিওলি করোনাভাইরাসের জন্য ছিলেন না কাল। সহকারী কোচ ড্যানিয়েল বনেরা নিশ্চিত করতে পারেননি ইব্রার চোট কতটা গুরুতর।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন