• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    হোয়াটমোরের সেরা টেস্ট একাদশে আছেন সাকিব

    বাংলাদেশের ক্রিকেটের বড় হয়ে ওঠার অনেকটা সময় তিনি ছিলেন হাত ধরে। শুধু বাংলাদেশ নয়, তার আগে পরেও কোচিং করিয়েছেন। শ্রীলংকার হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছেন, পরে ছিলেন পাকিস্তান-জিম্বাবুয়ের কোচ। খেলোয়াড়ি জীবনটা খুব বড় না হলেও অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। খেলোয়াড়ি ও কোচিং জীবনে তার সঙ্গে কাজ করা ক্রিকেটারদের একটা সেরা একাদশ করেছেন ডেভ হোয়াটমোর। সেই টেস্ট একাদশে আছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। প্রকাশিত হয়েছে ইএসপিএনক্রিকইনফোর ক্রিকেট মান্থলিতে।

    হোয়াটমোর বাংলাদেশের যখন দায়িত্ব নিয়েছিলেন, তখনও সাকিবের অভিষেক হয়নি। তবে ২০০৬ সালে সাকিবের অভিষেকের সময়ও তিনি ছিলেন কোচ। এরপর ২০০৭ বিশ্বকাপে সাকিবদের ভারত-বধের সময়ও ছিলেন হোয়াটমোর, এরপরেই কোচিং ছেড়েছেন বাংলাদেশের। নিজের সেরা একাদশে সাকিবকে রেখেছেন তিনি। হোয়াটমোর বলছেন, ‘আমি যখন ওকে প্রথমবার দেখি তখনই বুঝেছিলাম ও অনেক দূর যাবে। ওয়ানডেতে ব্যাটিং-বোলিং দুইটিতেই ও ছিল দারুণ। এরপর সে আরও পরিণত হয়েছে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এক নম্বর অলরাউন্ডার হয়েছে। আস্তে আস্তে আরও থ্রি ডাইমেনশনাল হয়েছে ও, হয়েছে বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার।’

    হোয়াটমোরের সেরা একাদশে ওপেনার হিসেবে আছেন শ্রীলংকার সনাৎ জয়াসুরিয়া ও পাকিস্তানের আজাহার আলী। তিনে কুমার সাঙ্গাকারা, চারে অরভিন্দ ডি সিলভা, পাঁচে মাহেলা জয়াবর্ধনে। ছয়ে হোয়াটমোরের খেলোয়াড়ি সতীর্থ অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অ্যালান বোর্ডার। এই দলের অধিনায়কও তিনি। সাতে আছেন সাকিব আল হাসান। আটে আছেন চামিন্দা ভাস। নিয়ে হোয়াটমোরের সতীর্থ অস্ট্রেলিয়ার সাবেক পেসার রডনি হগ, দশে মুত্তিয়া মুরালিধরন। আর সবার শেষে আছেন পাকিস্তানের সাবেক পেসার উমর গুল।

    হোয়াটমোর যাদের প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছিলেন তাদের একাদশও করেছেন একটা। সেখানে ওপেনার হিসেবে আছেন সুনীল গাভাস্কার, দলের অধিনায়কও তিনি। এরপর মার্ক টেলর, রিকি পন্টিং, শচীন টেন্ডুলকার, ব্রায়ান লারা, রাহুল দ্রাবিড়, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, কপিল দেব, ওয়াসিম আকরাম, শেন ওয়ার্ন ও গ্লেন ম্যাকগ্রা।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন