• ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফর ২০২১
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    বিশ্বকাপের পর আবারও 'প্রতিক্রিয়ার মুখে' জার্সি বদলে ফেললো বিসিবি

    একবার প্রকাশের পর আবারও বদলে গেল জাতীয় দলের ওয়ানডে জার্সি। রবিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য বিশেষ জার্সি প্রকাশ করেছিল বিসিবি, দুই ঘন্টার ব্যবধানে সেটি বদলে ফেলা হয়েছে আবারও। 

    বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে বিশেষ এই জার্সি বানানো হয়েছে, জানা গিয়েছিল এমন। লাল-সবুজ রঙের প্রাধান্য পাওয়া এই জার্সিতে আছে জাতীয় স্মৃতিসৌধ, মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিকৃতি এবং মানচিত্র। তবে প্রথম জার্সিতে স্পন্সরের নাম থাকলেও ‘বাংলাদেশ’ নাম ছিল না। 


    জার্সি নাটক : (বাঁয়ে) প্রথম প্রকাশিত, (ডানে) দুই ঘন্টার ব্যবধানে বদলে ফেলা ডিজাইন/ বিসিবি


    সাধারণত দ্বিপক্ষীয় সিরিজে জার্সিতে বুকের দিকটায় স্পন্সরের নামে বাধা নেই আইসিসির পক্ষ থেকে, তবে সাম্প্রতিক সময়ে বিসিবি স্পন্সরের সঙ্গে ‘বাংলাদেশ’ লেখাও রেখেছিল জার্সিগুলিতে। টেস্টখেলুড়ে দেশগুলির মাঝে সাধারণত ভারতই টাইটেল স্পন্সরের সঙ্গে দেশের নামও ব্যবহার করে বেশ আগে থেকেই। অন্যান্য দেশগুলি দ্বিপক্ষীয় সিরিজে রাখে শুধু স্পন্সরের নামই। তবে আইসিসি টুর্নামেন্টে বুকের কাছে দেশের নাম ছাড়া স্পন্সরের নামের অনুমতি দেয় না আইসিসি। 

    কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বোর্ডগুলির আর্থিক ক্ষতির কথা বিবেচনায় এনে টেস্টে জার্সিতেও বুকের কাছে স্পন্সরের নাম ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে আইসিসি। 
     


    ২০১৯ বিশ্বকাপে শুরুতে এই জার্সি পরার কথা থাকলেও পরে সেটি বদলে ফেলেছিল বিসিবি/প্যাভিলিয়ন


    ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য বিসিবির দেওয়া জার্সি সামাজিক-যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ‘বাংলাদেশ’ না থাকা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এরপর আবারও জার্সিতে বদল আনা হলো। 

    এর আগে ২০১৯ বিশ্বকাপে এমন প্রতিক্রিয়ার পর জার্সি বদলে ফেলেছিল বিসিবি। আনুষ্ঠানিক জার্সি উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রথম যেটি দেখানো হয়েছিল, সেটিতে ‘লাল রঙ অনুপস্থিত’, এমন আলোচনার পর জার্সি ডিজাইন বদলে ফেলেছিল তারা। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফরে জাতীয় দলের স্পন্সর হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি বেক্সিমকোর নাম। কিট স্পন্সর হিসেবে আছে বেক্সিমকোরই অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আকাশ। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন