• লা লিগা
  • " />

     

    ভারানের জোড়া গোলে হুয়েস্কা-শংকা কাটাল রিয়াল

    ভারানের জোড়া গোলে হুয়েস্কা-শংকা কাটাল রিয়াল    

    ম্যাচের আগে জিনেদিন জিদান মেজাজ হারিয়ে সংবাদমাধ্যমকে এক হাত নিয়েছিলেন। এই ম্যাচ হারলে চাপ আরও বেড়ে যেত রিয়াল মাদ্রিদ কোচের ওপর। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে হুয়েস্কা এগিয়ে যাওয়ায় সেরকম সম্ভাবনা উঁকি দিচ্ছিল রিয়ালের দিগন্তে। কিন্তু ১৩ মাস পর গোল পেলেন রাফায়েল ভারান, তাও একবার না পর পর দুই বার। তার জোড়া গোলেই হুয়েস্কাকে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার দুইয়েই রইল রিয়াল। 

    আক্রমণ আর পালটা আক্রমণের ম্যাচটা স্কোরলাইন বোঝাতে পারছে না কিছুই। অন্তত চার গোল হতে পারত দুই পক্ষেই। পোস্ট দুই দলের জন্যই বাধা হয়েছে, আবার দুই দলের গোলরক্ষকই করেছেন দুর্দান্ত কিছু সেভ। ম্যাচের শুরুটা রিয়ালই ভালো করেছিল। ৫ মিনিটে একটুর জন্য গোল পায়নি, এরপর ২৫ মিনিটে টনি ক্রুসের শট চলে যায় পোস্ট ঘেঁষে। প্রথমার্ধে চেষ্টা করেও রিয়াল গোল পায়নি। 

    খেলাটা আসলে হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধেই। বিরতির পর থেকেই হুয়েস্কা আক্রমণে আর পালটা আক্রমণে কাঁপিয়ে দিতে থাকে রিয়ালকে। ৪৭ মিনিটে পোস্ট বাধা হলে তখনই এগিয়ে যেতে পারত। তবে মিনিটখানেক পর সেটা আর হয়নি। দারুণ একটা প্রতি আক্রমণ থেকে বক্সের ঠিক মাথায় বল পেয়েছিলেন জাভি গালান। বাঁ পায়ের মাপা এক শটে বল জড়িয়ে দেন টপ কর্নারে। এর মিনিটখানেকের মধ্যেই আবার এগিয়ে যেতে পারত হুয়েস্কা, এবারও বাধা বার। 

    তবে এরপর রিয়াল আস্তে আস্তে খেলায় ফেরার চেষ্টা করে। বেনজেমার একটা শট হুয়েস্কা গোলরক্ষক ফার্নান্দেজ ঠেকিয়ে না দিলে এগিয়ে যেতে পারত তখনই। শেষ পর্যন্ত বেনজেমার মাধ্যমেই এগিয়ে যায় রিয়াল। অনেক দিন ধরেই ফ্রিকিক নিতে চাচ্ছিলেন বেনজেমা, কেন সেটা দেখালেন আজ, তার ৩০ গজী ফ্রিকিক পোস্টে লেগে ফিরে এলে ভারান লাফগিয়ে উঠে পিঠ দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন জটলার মধ্যে। 

    এরপর রিয়াল এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে থাকে। বেনজেমার শট থেকে পয়েন্ট ব্ল্যাংক রেঞ্জে অবিশ্বাস্য একটা সেভ ফার্নান্দেজ না করলে এগিয়ে যেতে পারত। তার আগে দারুণ একটা সেভ করেছেন কোর্তোয়াও। শেষ পর্যন্ত ৮২ মিনিটে আসে গোল। এবার কাসেমিরোর হেড ফার্নান্দেজ ঠেকিয়ে দিলে ফিরতি বলটা জালে জড়িয়ে দেন ভারান। জিদান পান স্বস্তির একটা জয়।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন