• লা লিগা
  • " />

     

    মেসির ইতিহাস ছোঁয়ার দিনে সেই কাদিজের কাছেই পয়েন্ট হারাল বার্সা

    মেসির ইতিহাস ছোঁয়ার দিনে সেই কাদিজের কাছেই পয়েন্ট হারাল বার্সা    

    জয়টা প্রায় পেয়েই গিয়েছিল বার্সেলোনা। তাহলেই স্মরণীয় হয়ে থাকত লিওনেল মেসির আরেকটি ইতিহাস ছোঁয়ার রাত। রিয়াল মাদ্রিদকে ছুঁয়ে উজ্জ্বল হয়ে থাকত শিরোপার আশা। সেই সঙ্গে পেয়ে যেত লিগে নিজেদের টানা অষ্টম জয়ও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কাদিজ গোল করে এলোমেলো করে দিল সব। পেনাল্টির সেই গোলে ম্যাচটা ড্র করল বার্সা, ছোঁয়া হলো না রিয়ালকে।

    এই কাদিজের মাঠে গিয়ে এই মৌসুমে হেরে এসেছিল বার্সা। আজ অবশ্য হারার তেমন কোনো লক্ষণ ছিল না। পুরো ম্যাচে কাদিজ সেই অর্থে ভীতি ছড়াতে পারেনি বার্সার রক্ষণে। মেসি অবশ্য রেকর্ডটা করে ফেলেছিলেন মাঠে নামার সময়েই। বার্সার হয়ে কাল ছিল তার ৫০৬তম ম্যাচ, ছাড়িয়ে গেলেন জাভির রেকর্ড। রাতটা মনে রাখার মতোও মনে হচ্ছিল যখন ৩১ মিনিটে পেনাল্টি পেয়ে যায় বার্সা। কাদিজের দুই ডিফেন্ডারের মধ্যে স্যান্ডউইচ হয়ে ফাউলের শিকার হলে বাঁশি বাজান রেফারি। এই মৌসুমে আরও একবার স্পটকিক থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। এই গোলের সঙ্গে লা লিগায় ৩৮টি ভিন্ন প্রতিপক্ষের সঙ্গেও গোলের রেকর্ড হয়ে গেছে মেসির। এরপরের মুহূর্তেই সমতা ফিরিয়ে ফেলেছিল কাদিজ, কিন্তু সবরিনো শট পোস্টে রাখতে পারেননি।

    ততক্ষণ পর্যন্ত সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল। বার্সার দখলেই ছিল বলের পজিশন, শটও ছিল টার্গেটে। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিলেন কাজিদের গোলরক্ষক লাদেসম্না। আগের লেগের মতো এবারও করেছেন দুর্দান্ত কিছু সেভ। মেসি আর গ্রিজমানকে ঠেকিয়ে দিয়েছেন। এর মধ্যে অবশ্য পেদ্রি আর ফ্রাংকি ডি ইয়ংয়ের দুইটি গোল বাতিল হয়ে গেছে।

    তারপরও বার্সা মেসির সেই গোলেই জয় পেয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু সব গড়বড় হয়ে গেল শেষ মুহূর্তে এসে। এবার সব্রিনোকে ফাউল করে বসলেন লেংলে, সেখান থেকে গোল করে সমতা ফেরান ইগলেসিয়াস।

    ম্যাচ ড্র করার পর কোমান বলেছেন, পিএসজির কাছে ৪-১ গোলে হারার চেয়েও এই ফল তার কাছে হতাশাজনক। জেরার্ড পিকেও বলেছেন, বার্সা শিরোপা লড়াইয়ে থাকার দৌড়ে পিছিয়ে গেছে কিছুটা।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন