• লা লিগা
  • " />

     

    ভিনিসিয়াসের শেষ মুহূর্তের গোলে পয়েন্ট বাঁচাল রিয়াল

    ভিনিসিয়াসের শেষ মুহূর্তের গোলে পয়েন্ট বাঁচাল রিয়াল    

    ম্যাচ প্রায় শেষের দিকে। ঘরের মাঠে হারটা চোখ রাঙাতে শুরু করেছে রিয়াল মাদ্রিদকে। ডান দিকে একটা আক্রমণ থেকে ঢুকে পড়লেন লুকাস ভাজকেজ। তার ক্রস্টা খুঁজে নিল ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে, সেই শট একজনের গায়ে লেগে ঢুকে গেল জালে। ক্লাবের হয়ে নিজের ১০০তম ম্যাচে মহামূল্যবান একটা পয়েন্ট  এনে দিলেন এই ব্রাজিলিয়ান।  যদিও পাঁচ ম্যাচের জয়যাত্রা কাল থেমে গেছে রিয়ালের।

    রিয়াল অবশ্য নিজেদের দুর্ভাগা মনে করতেই পারে। প্রথমার্ধেই অন্তত দুবার এগিয়ে যেতে পারত তারা। একবার মারিয়ানোর শট ফিরে আসে পোস্টে লেগে, ফিরতি বলে গোল করতে পারেননি আসেন্সিও। সেখান থেকেই আবার কর্নার পায়, এবার হেড করেন ভারান। কিন্তু সেটাও ফিরে আসে পোস্টে লেগে। মিনিট দুয়েকের মধ্যে দুবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ হারায় রিয়াল। প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষের গোলে মাত্র একটা শট থাকার পরও আধিপত্য ছিল রিয়ালেরই।

    দ্বিতীয়ার্ধে অনেকটা খেলার ধারার বিপরীতেই এগিয়ে যায় সোসিয়েদাদ। দুর্দান্ত একটা হেডে পর্তু গোল করেন হতভম্ব করে দেন রিয়ালকে। এরপরও চেষ্টা করেছিল রিয়াল গোল করার, ক্রুসের শট একটুর জন্য চলে গেছে বাইরে দিয়ে। ওদিকে মদ্রিদ সোসিয়েদাদ গোলরক্ষককে পরীক্ষায় ফেলেও গোল করতে পারেননি।

    শেষ পর্যন্ত কাঙ্খিত গোলটা রিয়াল পেয়ে যায় ৮৯ মিনিটে। ১-১ গোলে ড্র করে অবশ্য শিরোপা লড়াই থেকে আরও পিছিয়ে পড়েছে তারা। ২৫ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট, বার্সারও সমান ম্যাচে একই পয়েন্ট। তবে ২৪ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে আছে অ্যাটলেটিকো। যদিও পরের সপ্তাহেই মাদ্রিদ ডার্বি, রিয়াল তখন সুযোগ পাবে ব্যবধান আরেকটু কমিয়ে আনার।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন