• লা লিগা
  • " />

     

    শেষ মুহূর্তের গোলে ডার্বিতে ড্র করে লা লিগাকে জমজমাট রাখল রিয়াল

    শেষ মুহূর্তের গোলে ডার্বিতে ড্র করে লা লিগাকে জমজমাট রাখল রিয়াল    

    ম্যাচের নির্ধারিত সময় প্রায় শেষের দিকে। টানা ছয় ম্যাচে অপরাজিত যাত্রাতা ভেস্তে যেতে বসেছে রিয়ালের, জয় দেখছে অ্যাটলেটিকো। তার চেয়েও বড় কথা, লা লিগার শিরোপালড়াইয়ে তাআর এগিয়ে যাচ্ছিল অনেকদূর। কিন্তু সেটা হতে দিলেন না করিম বেনজেমা। শেষ মুহূর্তের গোলে সমতা ফেরাল রিয়াল। নিজেদের সাথে বাঁচিয়ে রাখল বার্সেলোনারও আশা। 

    শেষ কবে রিয়ালের জয় বা ড্র কামনা করেছে বার্সা সমর্থকেরাও, মনে করা কঠিন। তবে আজকের ম্যাচের প্রেক্ষাপট ছিল এমনই। দুইয়ে থাকা বার্সার চেয়ে দুই ম্যাচ কম খেলে দুই পয়েন্ট এগিয়ে ছিল অ্যাটলেটিকো, এই ম্যাচ জিতলে শিরোপালড়াইয়ে এগিয়ে যেত অনেকটাই। ম্যাচটা যে সিমিওনের দল জেতার জন্য নেমেছে, সেটা বুঝিয়ে দিচ্ছিল শুরু থেকেই। প্রথম গোলটা পেতে সময় লেগেছে ১৫ মিনিট। কাআয়রন ট্রিপিয়ের একাদশে ফিরে দারুন একটা বল বাড়িয়েছিলেন মার্কাস লরেন্তেকে। সেটা লরেন্তে রিয়ালের একজনকে কাটিয়ে নিয়ে বাড়ালেন সুয়ারেজকে। নিজের জাত চেনানো ফিনিশে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন সুয়ারেজ। রিয়ালের বিপক্ষে সর্বশেষ ১২টি ম্যাচ এটি সুয়ারেজের দশম গোল, সেই সঙ্গে আরও একবার বার্সাকে বার্তা দিলেন এখনও শীর্ষ ফুটবলকে দেওয়ার অনেক কিছুই আছে তার। 

    গোলের পর রিয়াল ফেরার চেষ্টা করে একটু একটু। ৩০ মিনিটে কাসেমিরোর ভলিতে অবলাক দুর্দান্ত সেভটা না করলে সমতা ফেরাতে পারত রিয়াল। কিন্তু ম্যাচের ৪২ মিনিটে আসে সবচেয়ে বিতর্কের মুহূর্ত। বক্সের ভেতর বল হাতে লাগে অ্যাটলেটিকোর ফেলিপ লুইজের। ভিএআরের পরামর্শের পর পিচ সাইডের মনিটরে দেখেও পেনাল্টির বাঁশি বাজাননি রেফারি। তবে সিদ্ধান্তটা নিয়ে নিশ্চিতভাবেই ক্ষুব্ধ হতে পারেন জিদান। 

    দ্বিতীয়ার্ধে দেখা গেছে দুই গোলরক্ষকের ক্লাস। কোর্তোয়া অন্তত দুবার বিপদমুক্ত করেছেন রিয়ালকে, সুয়ারেজের শট ঠেকিয়ে দিয়েছেন পয়েন্ট ব্ল্যাংক থেকে। একইভাবে পয়েন্ট ব্ল্যাংক থেকে অবলাক ফিরিয়েছেন বেনজেমাকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ৮৮ মিনিতে পজএশন হারানোর খেসারত দিয়েছে অ্যাটলেটিকো। কাসেমিরোর সঙ্গে ওয়ান টু করে বক্সে ঢুকে পড়েছেন বেনজেমা, বাকি কাজটা সেরেছেন সহজেই। ড্রতেই শেষ হয়েছে ম্যাচ, যে ফলে নিশ্চিতভাবেই সবচেয়ে বেশি খুশি হবে বার্সা। এক ম্যাচ কম খেলে এখন অ্যাটলেটিকোর সাথে তাদের ব্যবধান তিন পয়েন্ট। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন