• লা লিগা
  • " />

     

    বার্সেলোনার সভাপতি হিসেবে ফিরলেন লাপোর্ত

    বার্সেলোনার সভাপতি হিসেবে ফিরলেন লাপোর্ত    

    লিওনেল মেসি ছেলেকে দিয়ে ভোট দিতে এসেছেন। ভোট দিতে এসেছেন বুস্কেটস, আলবা, কিরকিচরা। ন্যু ক্যাম্পে অনেক দিন পর যেন উৎসব ফিরেছিল কাল। সেটা শেষ হয়েছে হুয়ান লাপোর্তের বিজয়ী হওয়ার খবরে, ২০১০ সালের পর আবারও বার্সা সভাপতি হিসেবে ফিরছেন তিনি। রোসেল, বার্তোমেউ যুগ শেষে বার্সেলোনায় আবার শুরু হচ্ছে লাপোর্ত যুগ। 

    বার্তোমেউর পদত্যাগের পর প্রায় পাঁচ মাস ফাঁকা ছিল বার্সা সভাপতি পদ।কাল নির্বাচনে লাপোর্তের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ভিক্টর ফন্ট ও টনি ফেইক্সা। সারাদিন ধরে ভোট চলেছে, প্রায় এক লাখ ভোটারের মধ্যে দিয়েছেন ৫৫ হাজারের মতো। শেষ পর্যন্ত ৫৪ শতাংশ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন লাপোর্তই। ফন্ট হয়েছেন দ্বিতীয়, আর ফ্রেইক্সা হয়েছেন তৃতীয়। তবে বিজিত দুজনই লাপোর্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। 

    বিজয়ী হওয়ার পরেই লাপোর্ত দুইটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইয়োহান ক্রুইফের পুত্র জর্দি ক্রুইফ ফিরছেন বার্সেলোনায়, কাজ করবেন স্পোর্টিং ডিরেক্টর হিসেবে। আর ভিক্টর ভালদেস ফিরছেন গোলরক্ষক কোচ হিসেবে। অবশ্য লাপোর্তের চ্যালেঞ্জ আরও অনেক বেশি। আর্থিক কেলেংকারিতে প্রায় শোচনীয় অবস্থা বার্সার, দেনা জমেছে ১ বিলিয়ন ইউরোর বেশি। রোসেল-বার্তোমেউদের আর্থিক অস্বচ্ছতার জেরে ক্লাবের ভাবমূর্তি হয়েছে ক্ষুণ্ণ, কদিন আগে তো পুলিশ এসে গ্রেপ্তারই করে নিয়ে গেছে বার্তোমেউদের। মাঠে অবশ্য সুদিন ফেরার ইঙ্গিত আছে বার্সার, কোমানের দল এখনো শিরোপা সম্ভাববা বাঁচিয়ে রেখেছে। সামনেই অবশ্য চ্যাম্পিয়নস লিগের বড় পরীক্ষা, নির্বাচিত হয়েই লাপোর্ত ডাক দিয়েছেন কামব্যাকের। 

    তবে লাপোর্তের আপাতত সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মেসিকে ধরে রাখা। এই মৌসুমেই চুক্তি শেষ হয়ে যাচ্ছে মেসির, কিন্তু লাপোর্ত বলছেন মেসিকে ধরে রাখার জন্য সম্ভাব্য সবকিছুই করবেন। আগের ক্লাব কর্তাদের সঙ্গে মেসির বিষিয়ে ওঠা সম্পর্ক লাপোর্ত কতটা ঠিক করতে পারেন সেটাই দেখার। মনে করিয়ে দেওয়া যায়, মেসির উত্থানের শুরু লাপোর্তের আগের সময় থেকেই। ২০০৩ সালে দায়িত্ব নেওয়ার পর রাইকার্ডকে কোচ করে বার্সাকে পথে ফিরিয়েছিলেন লাপোর্ত। রোনালদিনহোর যুগ তখনই শুরু। পরে গার্দিওলা এলেন, মেসির সঙ্গে জাভি-ইনিয়েস্তারা মিলে বদলে দিলেন ইতিহাস। লাপোর্ত সেই সুদিন ফেরাতে পারবেন কিনা সেটাই এখন মিলিয়িন ডলার প্রশ্ন।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন