• লা লিগা
  • " />

     

    মেসি রিয়াল মাদ্রিদে আসলে নিজের বাসায় থাকতে দেবেন রামোস

    মেসি রিয়াল মাদ্রিদে আসলে নিজের বাসায় থাকতে দেবেন রামোস    

    দুইজনের মধ্যে মাঠে বৈরী মুহূর্ত একেবারে কম না; সাথে ক্লাব হিসেবে দুই দলের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিতার ইতিহাস তো আছেই। তবে ক্যারিয়ারের এই গোধূলীলগ্নে এসে লিওনেল মেসি যদি বার্সেলোনা ছাড়তেই চান, তাহলে রিয়াল মাদ্রিদে তাকে স্বাগত জানাতেও রাজি সার্জিও রামোস। এমনকি প্রথম কিছু সপ্তাহ নিজের বাসায় মেসিকে রাখতেও চান মাদ্রিদ অধিনায়ক। 

    ভিডিও লাইভস্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ‘টুইচ’-এ ইবাই লানোসের সাথে কথাপ্রসঙ্গে মাদ্রিদে মেসিকে স্বাগত জানানোর ব্যাপারে রামোস আরও বলেন, “লিওর সেরা সময়ে আমাদেরকে ভালই ভুগতে হয়েছিল। তাই তার মুখোমুখি আরও না হওয়াটাই ভাল। আর মেসি এখানে এসে মাদ্রিদকে আরও সাফল্যও এনে দিতে পারে চাইলে।” 

    তবে এই মৌসুম শেষে মাদ্রিদে চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে যাওয়া রামোসকে বার্সেলোনায় যোগ দিবেন কি না জিজ্ঞেস করা হলে সরাসরি নাকচ করে দেন সেই প্রস্তাব। সাথে আরও জানান, “মাঝেমধ্যে টাকা দিয়ে চাইলেও সবকিছু কেনা যায় না। যেমন, জাভি (হার্নান্দেজ) কিংবা পিকে এরা কখনোই মাদ্রিদে আসবে না... “ 

    আর রামোসকে যদি রিয়াল মাদ্রিদের প্লেয়ার সাইনিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হত তাহলে এমবাপের বদলে আরলিং হালান্ডকেই বেছে নিতেন বলে জানিয়েছেন। যদিও সুযোগ থাকলে দুইজনকে একসাথেই দলে চাইতেন, কিন্তু কোভিড পরিস্থিতিতে ক্লাবের আর্থিক সংকট আর এমবাপেকে নিয়ে পিএসজির চড়া দাম হাঁকানো - এই দুই মিলিয়েই হালান্ডকে দলে ভেড়ানোটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে জানিয়েছেন রামোস।

    অন্যদিকে আমাজন প্রাইমে মুক্তি পেতে যাওয়া ৬ পর্বের ডকুসিরিজ 'দ্য লেজেন্ড অফ সার্জিও রামোস'-এর উদ্বোধনের প্রাক্কালে আরও পাঁচ বছর এভাবে খেলে যেতে চান বলে জানিয়েছেন রামোস। ৩৪ বছর বয়সী রামোস মাসখানেক আগে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়ে মাঠের বাইরে থাকলেও সম্প্রতি যোগ দিয়েছেন দলের সাথে ট্রেনিংয়ে। খেলতে পারেন আগামী সপ্তাহে আটালান্টার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের দ্বিতীয় লেগেও। পাশাপাশি ক্লাবের সাথে নতুন চুক্তি নিয়ে এখনও কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন তিনি। জুনের ৩০ তারিখেই মাদ্রিদের সাথে চুক্তি শেষ হয়ে যাবার কথা রামোসের। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন