• লা লিগা
  • " />

     

    বর্ণবাদের প্রতিবাদে মাঠ ছেড়ে ভ্যালেন্সিয়ার অভূতপূর্ব প্রতিবাদ

    বর্ণবাদের প্রতিবাদে মাঠ ছেড়ে ভ্যালেন্সিয়ার অভূতপূর্ব প্রতিবাদ    

    বর্ণবাদী থাবা আগেও পড়েছে লা লিগায়, তবে এর আগে কেউ যা করেনি কাল সেটা করেছে ভ্যালেন্সিয়া। কাদিজের সঙ্গে ম্যাচের সময় মকতার দিয়াখবির বিরুদ্ধে বর্ণবাদী মন্তব্যের প্রতিবাদে মাঠ ছেড়েছে ভ্যালেন্সিয়া। যদিও পরে তারা আবার খেলায় ফিরেছে। 

    দর্শকদের বর্ণবাদী মন্তব্য লা লিগায় নতুন কিছু নয়।  এর আগে দানি আলভেসের কলার সেই ঘটনা পুরো ফুটবল বিশ্বে ভাইরাল হয়েছিল। এখন মাঠে দর্শক নেই, তবে বর্ণবাদ ঠিকই আছে। কাল যেমন কাদিজের ম্যাচের সময় হুয়ান সালার সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পরেন দিয়াখবি। এরপর ভ্যালেন্সিয়ার গ্যাব্রিয়েল পলিস্তা লাথি মেরে বল বাইরে পাঠিয়ে দেন, তার পরেই তারা সবাই মাঠ ছাড়েন। কিছুক্ষণ পর আবার তারা ফিরে আসেন মাঠে, তবে দিয়াখবি আর ফেরেননি। সাইডলাইনে দাঁড়িয়েই বাকি খেলা দেখেছেন। 

    ম্যাচ শেষে দিয়াখবি বলেছেন, সালা তাকে এমন একটা বর্ণবাদী মন্তব্য করেছেন যেটা খুবই আপত্তিকর ছিল। সেটার প্রতিবাদেই তিনি মাঠ ছেড়েছেন। এফারিকেও এই ঘটনাটা তিনি বলেছেন। ভ্যালেন্সিয়া ডিফেন্ডার হোসে গায়া বলেছেন, তারা চেয়েছিলেন আর কেউই মাঠে না ফিরতে। তবে দিয়াখবি অনুরোধ করেছেন ফেরার জন্য, নইলে পয়েন্ট হারানোসহ বড় শাস্তি পেতে হতে পারত ক্লাবকে। সেজন্যই তারা আবার ম্যাচে ফিরেছেন। তবে এ নিয়ে নিজেদের প্রতিবাদ জানিয়েছে স্পষ্ট করেই। ম্যাচটা যদিও তারা হেরে গেছে ২-১ গোলে।

    বর্ণবাদ থাবা ফেলেছে ইংলিশ লিগেও। এবার অনলাইনে বর্ণবাদী মন্তব্যের শিকার হয়েছেন টটেনহাম ডিফেন্ডার ডেভিনসন সানচেজ। এর আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অ্যান্থনি মার্শিয়াল, মার্কাস রাশফোর্ড, অ্যাক্সেল টুয়ানজেবে ও চেলসির রিজ জেমসও বর্ণবাদী মন্তব্যের শিকার হয়েছিলেন। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন