• লা লিগা
  • " />

     

    দুর্দান্ত গ্রিজমানে ভিয়ারিয়াল-বাধা কাটাল বার্সা

    দুর্দান্ত গ্রিজমানে ভিয়ারিয়াল-বাধা কাটাল বার্সা    

    আগের দিন হোঁচট খেয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ অবশ্য এখনো পথেই আছে। তবে বার্সেলোনার জন্য আজকের ম্যাচটা শিরোপা জয়ের পথে বড় একটা বাধা। আঁতোইন গ্রিজমানের জোড়া গোলে সেই বাধা কাটিয়েছে বার্সা, ২-১ গোলের জয়ে তাদের পয়েন্ট এখন ৭১, রিয়াল মাদ্রিদের সমান। রিয়াল অবশ্য এক ম্যাচ বেশি খেলেছে, আর বার্সার সমান ম্যাচ খেলে ৭৩ পয়েন্ট অ্যাটলেটিকোর। শেষ পর্যন্ত তাই বার্সা-অ্যাটলেটিকো বা সেভিয়া-রিয়াল ম্যাচ দুটি নির্ধারণ করে দিতে পারে লিগের ভাগ্য।

    অথচ ম্যাচের প্রথম ধাক্কাটা বার্সাকেই দিয়েছিল ভিয়ারিয়াল। ২৬ মিনিটে জর্দি আলবার ভুলের সুযোগে বক্সের ভেতর বল পেয়ে গিয়েছিলেন চুকভেজে। তের স্টেগেনকে পাশ কাটিয়ে এরপর বাঁ পায়ের ঠাণ্ডা মাথার ফিনিশে বল জড়িয়ে দিয়েছেন জালে। তবে গোল শোধ করতে মিনিট খানেকের বেশি সময় নেয়নি বার্সা। অস্কার মিনউয়েজার থ্রু থেকে বল অএয়ে গিয়েছিলেন গ্রিজমান। বাঁ পায়ের যে টাচে বল জালে জড়িয়ে দিয়েছেন, সেটার জন্য ম্যাচ শেষে মেসির কাছ থেকে আলাদা করে প্রশংসা পাওয়ার কথা তার। দুর্দান্ত ওই ফিনিশে তাই দ্রুতই সমতা ফেরায় বার্সা।  অবশ্য ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ং একেবারে একটা সহজ সুযোগ নষ্ট না করলে শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারত বার্সা।

    তবে খানিক পর বার্সার ভাগ্য আরেকটু বেশি সুপ্রসন্ন হয়েছে। এবার হুয়ান ফয়থ ব্যাক পাস দিতে গিয়ে বল তুলে গিয়েছিলেন গ্রিজমানকে। সহজ একটা সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি গ্রিজমান। 

    তবে এরপর ভিয়ারিয়ালের ভাগ্য আরও খারাপ হয়েছে। ৬৫ মিনিটে ত্রাইগেরস মুনোজ মেসিকে বিপজ্জনক একটা ট্যাকল করে লাল কার্ড দেখেন। শুরুতে মনে হচ্ছিল মেসির চোটটা খারাপ কিছু, কিন্তু দ্রুতই সামলে উঠেছেন। তবে বার্সা একজন বেশি নিয়েও খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। বরং ভিয়ারিয়াল মাঝেমধ্যেই ভীতি ছড়াচ্ছিল। শেষের দিকে বরং সময় নষ্ট করার জন্য লাল কার্ডও দেখেছে বার্সা। তবে দিন শেষে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন কোমান।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন