• লা লিগা
  • " />

     

    লা লিগায় শেষ দিন: অ্যাটলেটিকো-রিয়ালের কার কী সমীকরণ, কার কাজ কতটা কঠিন?

    লা লিগায় শেষ দিন: অ্যাটলেটিকো-রিয়ালের কার কী সমীকরণ, কার কাজ কতটা কঠিন?    

    মৌসুমের প্রায় পুরোটা সময় ধরেই এগিয়ে ছিল অ্যাটলেটিকো। একটা সময় মনে হচ্ছিল তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে। বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ পেছন থেকে যখন টপকে যাবে মনে হচ্ছিল, এরপর সিমিওনের দল স্নায়ু ধরে রেখে নিজেদের সুবিধাটা ধরে রেখেছে। এর মধ্যে বার্সেলোনা ছিটকে গেছে লিগ থেকে, কিন্তু টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত থেকে জিনেদিন জিদানের দল এখনো টিকিয়ে রেখেছে আশা। শেষ দিন রিয়াল নিজেদের মাঠে মুখোমুখি হবে ভিয়ারিয়ালের। অন্যদিকে অ্যাটলেটিকো যাবে ভায়াদোলিদের মাঠে খেলতে। 

    শেষ দিনে কার কী সমীকরণ?

    অ্যাটলেটিকোর পয়েন্ট ৮৩। তাদের হিসেব সহজ, শেষ ম্যাচটা জিতলেই তারা চ্যাম্পিয়ন। অন্যদিকে রিয়ালের পয়েন্ট ৮১, অ্যাটলেটিকোর চেয়ে দুই পয়েন্ট কম। জিদানের দল শিরোপা জিততে পারে যদি অ্যাটলেটিকো ড্র করে বা হারে। অ্যাটলেটিকো ড্র করার পর যদি রিয়াল ভিয়ারিয়ালকে হারাতে পারে, তাহলে দুই দলের পয়েন্ট হবে সমান। কিন্তু দুই দলের হেড টু হেড লড়াইয়ে এগিয়ে থাকার জন্য (এই মৌসুমে লা লিগায় দুই দলের লড়াইয়ে রিয়াল একটি জিতেছে ও একটি ড্র করেছে) রিয়ালই পাবে তখন ট্রফি। অ্যাটলেটিকো হেরে গেলেও তারা চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে যদি অন্য ম্যাচে রিয়াল পয়েন্ট হারায়। 

    কার কাজ কতটা কঠিন?

    রিয়ালের প্রতিপক্ষ ভিয়ারিয়াল, যাদের মাঠে গিয়ে গত বছর ড্র করেছিল রিয়াল। আজকের ম্যাচটা অবশ্য নিজেদের মাঠে খেলবে। উনাই এমেরির ভিয়ারিয়ালের জন্যও এই ম্যাচটা গুরুত্বপুর্ণ। ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে পয়েন্ট তালিকার সাতে, আজকের ম্যাচ জিতলে তারা টপকে যেতে পারে সসোসিয়েদাদ ও বেতিসকে। নিশ্চিত করতে পারে ইউরোপা লিগ। যদিও তিন পর ইউরোপা লিগ ফাইনালে ম্যান ইউনাইটেডকে হারালে তারা সরাসরি চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলবে। নিজেদের মাঠে রিয়ালের কাজটা আজ সহজ হওয়ার কথা নয়। রিয়াল অবশ্য গত মৌসুমেও কাছাকাছি অবস্থায় পড়েছিল। শেষ দিনে তাদের জয় দরকার ছিল। এই ভিয়ারিয়ালকেই শেষ ম্যাচে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জিদানের দল।

    অন্যদিকে ভায়াদোলিদের মাঠে খেলতে যাবে অ্যাটলেটিকো। ভায়াদোলিদ এই মুহূর্তে আছে পয়েন্ট তালিকার ১৯ নম্বরে, তবে রেলিগেশন এড়াতে হলে আজকের ম্যাচটা তাদের জিততেই হবে। সিমিওনে আজ তার পুরো স্কোয়াড নিয়ে যাচ্ছেন ভায়াদোলিদে। সেখানে আছে চোটের জন্য খেলতে না পারা থমাস লেমার বা সাসপেনশনের জন্য বাইরে থাকা স্টেফান সাভিচও। ভায়াদোলিদকে নিজেদের মাঠে গত ডিসেম্বরে হারিয়ে এসেছে অ্যাটলেটিকো। সিমিওনে জানেন, সাত বছর পর আরেকবার লা লিগা জেতার রাস্তাটা কঠিন করে তুলবে ভায়াদোলিদ। 

    দলের খবর

    করোনা ভাইরাসে এর মধ্যেই ছিটকে গেছেন ক্রুস, চোটের জন্য আরও একবার বাইরে হ্যাজার্ড। মেন্ডি, কারভাহালরা আগে থেকেই বাইরে। তবে রিয়ালের জন্য সুখবর, চোট কাটিয়ে রামোস-ভারান ফিরছেন আজ। যদিও জিদান ভরসা রাখতে পারেন ইনফর্ম মিলিতাও-নাচোর ওপর। অ্যাটলেটিকো আগের ম্যাচের দলটা নিয়েই নামতে পারে আজ, শুধু লেমারকে পাচ্ছেন না সিমিওনে। সাভিচের জায়গা নিতে পারেন হিমেনেজ। ফেলিক্সের জ্যগায় খেলতে পারেন কোরেয়া।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন