• বিশ্বকাপ বাছাই
  • " />

     

    নেইমার-রিচার্লিসনের গোলে পাঁচে পাঁচ ব্রাজিলের

    নেইমার-রিচার্লিসনের গোলে পাঁচে পাঁচ ব্রাজিলের    

    ফুলটাইম স্কোর: ব্রাজিল ২-০ ইকুয়েডর


    নেইমারের অ্যাসিস্টে রিচার্লিসনের বাঁ পায়ের গোল আর ম্যাচের একদম শেষদিকে নেইমারের পেনাল্টিতে বাছাইপর্বে শতভাগ জয়ের রেকর্ড অক্ষুণ্ণ রাখল তিতের দল। ৫ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে সবার উপরে ব্রাজিল।

    ম্যাচ শুরু হয়েছিল ইকুয়েডরের প্রাধান্য বিস্তার করে। যদিও সময় গড়াতে গড়াতে গুছিয়ে নেয় ব্রাজিল। ম্যাচের প্রথমার্ধে অবশ্য তেমন বড় কোনো সুযোগ আসেনি। ৪২ মিনিটে পাঁচ বছর পর জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া ফ্ল্যামেঙ্গো ফরওয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল বারবোসার গোল অফসাইডের জন্য বাতিল হয়। তাই গোলশূন্য সমতায় বিরতিতে যায় দুই দল।



    দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে স্বাগতিকরা চেপে ধরে ইকুয়েডরকে। এরই সুফল আসে ম্যাচের ৬৫ মিনিটে। নেইমারের বাড়ানো বল থেকে বাম পায়ের শটে রিচার্লিসন জালে জড়ান বল।

    এগিয়ে গিয়েও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতেই রাখে ব্রাজিল। ফ্রেডের পরিবর্তে গ্যাব্রিয়েল হেসুস আর বারবোসার বদলে ফিরমিনো নামার পর আক্রমণে আরও ধার বাড়ে তাদের। ৮৯ মিনিটের দিকে ডিবক্সে হেসুসকে ফেলে দেওয়া হলে ভিএআরের মাধ্যমে পেনাল্টি পায় ব্রাজিল। প্রথমবার নেইমারের নেওয়া পেনাল্টি গোলকিপার ডমিনগুয়েজ রুখে দিলেও তিনি শট নেওয়ার আগে বের হয়ে আসেন গোললাইন থেকে। তাই রেফারি আবার কিক নেওয়ার জন্য বাঁশি বাজান। এবার আর ভুল করেননি নেইমার, ঠাণ্ডা মাথায় পরাস্ত করেন গোলরক্ষককে। 

    পুরো ম্যাচে ব্রাজিলের রক্ষণভাগ ছিল দুর্দান্ত, গত ৩ ম্যাচে ১৩ গোল দেওয়া ইকুয়েডর এই ম্যাচে গোলে কোনো শটই নিতে পারেনি। 

    কোপা আমেরিকার আগে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ব্রাজিলের ম্যাচ আছে আরও একটি। ৯ জুন ভোর ৬.৩০টায় (বাংলাদেশ সময়) প্যারাগুয়ের মুখোমুখি হবে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন