• ভারত-বাংলাদেশ সিরিজ
  • " />

     

    হায়দরাবাদে কোহলির তিন রেকর্ড

    ম্যাচ জয়ের পর বাকিরা আনন্দ-উল্লাসে ব্যস্ত। আম্পায়ার ও ব্যাটসম্যানদের সাথে হাত মিলিয়ে সবার কাছ থেকে একটু আলাদা হয়ে গেলেন। খুব যত্ন নিয়ে একটি স্টাম্প তুলে নিলেন ম্যাচের স্মৃতি হিসেবে। এরকম স্টাম্প তো অনেক আছে তাঁর কাছে। কিন্তু অধিনায়ক বিরাট কোহলির সংগ্রহে থাকা অন্য স্মারকগুলোর চেয়ে এটি হয়তো একটু আলাদা। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট জিতে একদিনেই করেছেন তিনটি রেকর্ড! ভেঙেছেন ভারতের অধিনায়ক হিসেবে টানা সবচেয়ে বেশি সিরিজ জয় ও সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড। স্পর্শ করেছেন ঘরের মাটিতে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার ৩৭ বছরের পুরনো রেকর্ডটিও।


     

    শেষবার পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছেন ২০১৫ সালের আগস্টে। গলে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৬৩ রানের পরাজয়ের পর বদলে গিয়েছে সবকিছুই। পরের দুই ম্যাচে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে সিরিজ জেতে কোহলির ভারত। তখন থেকেই শুরু এই ‘জয়যাত্রার’। দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড কেউই দাঁড়াতে পারেনি তাঁদের সামনে। ২০০৮ সালের অক্টোবর থেকে ২০১০ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত টানা ৫টি সিরিজ জিতেছিল ভারত। তবে ওই সময়ে অধিনায়ক বদল হয়েছে দুবার। বীরেন্দর শেবাগের পর অনিল কুম্বলে দায়িত্ব পান। কুম্বলে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ালে অধিনায়ক হন মহেন্দ্র সিং ধোনি। গতকাল হায়দরাবাদে বাংলাদেশের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টটি জিতে ৬ বছর পুরনো সেই রেকর্ডকে টপকেছেন। টানা ছয় সিরিজ জয়ের রেকর্ডটাও নিজের করে নিলেন।

     

     

    টানা সিরিজ জয়ের পাশাপাশি ভারতের অধিনায়ক হয়ে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটাও কোহলির নামের পাশেই লেখা হয়ে গিয়েছে। ১৯৭৬ সালের ২৪ জানুয়ারি থেকে ১৯৮০ সালের ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত টানা ১৮ ম্যাচে অপরাজিত ছিল সুনীল গাভাস্কারের দল। ৬ জয় ও ১২টি ড্রতে হয়েছিল কীর্তিটি। তবে কোহলির ভারত ১৯ টি ম্যাচের মাঝে জিতেছে ১৫ টিতে, ড্র মাত্র ৪টি!


     

    ঘরের মাটিতে কোহলির ভারত আরও বেশি ভয়ংকর হয়ে উঠেছে। কালকের ম্যাচের জয়ের পর ৩ যুগ আগের আরেকটি রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছে তাঁরা। ১৯৭৭ সালের ২৮ জানুয়ারি থেকে  থেকে ১৯৮০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারির মাঝে ঘরের মাটিতে টানা ২০ ম্যাচ অপরাজিত ছিল ভারত। ওই ৩ বছরে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বিষেণ সিং বেদি, সুনীল গাভাস্কার ও গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ। তবে তাঁদের তিনজনের পাশে বসে গিয়েছেন ধোনি ও কোহলি। ২০১২ সালে ঘরের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ হারের পর ঘরের মাটিতে পরাজয়ের মুখ দেখেনি ভারত। ধোনি নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়াকে ধবলধোলাইয়ের পর সেই জয়জাত্রা ধরে রেখেছেন কোহলি। তাঁর অধীনে টানা ১৫ ম্যাচ অপরাজিত আছে ভারত, সব মিলিয়ে সংখ্যাটা ২০। পুনেতে ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে পরাজয় এড়াতে পারলেই গাভাস্কারদের  ছাড়িয়ে যাবেন কোহলি।


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন