• লা লিগা
  • " />

     

    রোনালদোর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ

    ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ এনেছে স্প্যানিশ আইনজীবিরা। ২০১১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ১৪ কোটি সাত লাখ ইউরো কর ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ এনে এরই মাঝে রোনালদোর বিরুদ্ধে মাদ্রিদের আদালতে মামলাও ঠুকে দিয়েছে তাঁরা! মাদ্রিদের প্রাদেশিক আইনসভায় দায়ের করা ওই মামলায় বলা হয়, কর ফাঁকি দিতেই নিজের আয় কমিয়ে দেখিয়েছেন পর্তুগিজ এই তারকা ফুটবলার।

    মামলার বিবৃতিতে আরও দাবি করা হয়, তিন বছরকালীন ওই সময়ের মাঝে রোনালদোর প্রকৃত আয় ছিল ২৮ কোটি চার লাখ ইউরো। কিন্তু নিজের আয় কমিয়ে সাড়ে ১১ কোটি ইউরো দেখিয়েছেন। এছাড়াও রোনালদো তার আয়ের অন্যতম উৎস হিসেবে রিয়েল এস্টেট কোম্পানির কথা দাবি করলেও আসলে নাকি ওই খাতে রোনালদোর আয় হয়েছে শেল কোম্পানি থেকে। কর প্রদানের সময় রিয়েল এস্টেট কোম্পানি দেখানোয় স্প্যানিশ আইন অনুযায়ী করের পরিমাণও হ্রাস পেয়েছিল রোনালদোর। উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কর ফাঁকি দেয়ার জন্যও রোনালদো এমনটা করেছেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে ওই মামলায়।

    গত ডিসেম্বরে রোনালদোর বিরুদ্ধে আনা আরেক কর ফাকির অভিযোগের পর পর্তুগিজ তারকার এজেন্সি তাঁর ১৯ কোটি দশ লাখ পাউন্ডের সম্পত্তির হিসেব প্রকাশ করেছিল আদালতে। সাথে এক বিবৃতিতে বলা হয়, " এই খেলোয়াড় তাঁর পেশাদার ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই নিজের কর সম্পর্ক সচেতন ছিল। এবং বিভিন্ন দেশে খেলা স্বত্তেও কখনই কর পরিশোধ নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ ছিল না"। গতমাসে মাদ্রিদের ট্যাক্স কর্মকর্তারা অবশ্য জানিয়েছিলেন ২০১৪ সালের কর ঠিকভাবে সমন্বয় করতে রোনালদো অতিরিক্ত ৫ কোটি ৩ লাখ ইউরো প্রদান করেছেন। 

    চারবারের ব্যালন ডি'অর জয়ী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর আগে কর ফাঁকির অভিযোগ আনা হয়েছিল লিওনেল মেসির বিপক্ষেও। সেই মামলায় সাজা হিসেবে ২১ মাসের জেলও হয়েছিল মেসির। রোনালদোর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগের অংকটা অবশ্য মেসির চেয়েও সাড়ে তিন গুণ বেশি। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন