• কনফেডারেশনস কাপ ২০১৭
  • " />

     

    রোনালদোর পেনাল্টি না নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করলেন সান্তোস

    রিকার্দো কারেসমা, হোয়াও মুতিনহো, নানি... কাজানে কালকের স্মৃতিটা কখনোই হয়তো ভুলতে পারবেন না এই তিন জন। পেনাল্টি থেকে তাঁদের কেউই যে গোল করতে পারেননি! ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোও কি ভুলতে পারবেন। হয়তো আফসোস করেছেন, তিনি একটি পেনাল্টি নিলে ম্যাচের ফল অন্যরকমও হতে পারত।

    কিন্তু রোনালদো কি পঞ্চম পেনাল্টির জন্যই অপেক্ষা করছিলেন? পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোস ম্যাচ শেষে ব্যাখ্যা দিলেন, তাঁদের পরিকল্পনাই ছিল এ রকম। ভিদাল পেনাল্টি থেকে প্রথম গোলের পরেই কারেসমার কিক ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন ব্রাভো। এরপর মুতিনহো, নানির দুর্বল কিক ঠেকিয়ে দিতেও কোনো সমস্যা হয়নি চিলি গোলরক্ষকের। রোনালদো তখন হাফলাইনে অসহায় দর্শক, ম্যাচ শেষেই দ্রুত মাঠ ছেড়েছেন। কিন্তু চাইলে কি আগে পেনাল্টি নিতে পারতেন না? সান্তোস ব্যাখ্যা করেছেন, তাদের পরিকল্পনাই ছিল এ রকম, 'এই তিন জনই কিন্তু গত ইউরোতে পোল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচে আমাদের জয় এনে দিয়েছে। এটাও ঠিক, ওদের গোলরক্ষক খুবই দুর্দান্ত ছিল। আমি সব সময় খেলোয়াড়দের পক্ষে, আর কে কখন কিক নেবে ওই সিদ্ধান্ত আমিই নিয়েছি।'


    কিন্তু প্রথম পেনাল্টি মিসের পর কি রোনালদো পরেরটির জন্য এগিয়ে আসতে পারতেন না? মার্শেইতে তো রোনালদোই প্রথম পেনাল্টি নিয়েছিলেন। সান্তোস আগের কথাটারই পুনরাবৃত্তি করলেন, 'আমরা এই ক্রমটা আগেই ঠিক করে রেখেছিলাম। ইউরোতে এভাবেই আমরা সাফল্য পেয়েছি। আর ক্রম হুট করে পরিবর্তন করতে বলার কোনো মানে নেই। এটা আগেই ঠিক ছিল।'


    তবে চিলিকেই দিন শেষে দিলেন কৃতিত্ব, 'আমাদের আরও বেশি ধারালো হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেটা হতে পারিনি। চিলিকে অভিনন্দন, ওরা জয় পেয়েছে।'

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন