• সিরি আ
  • " />

     

    ইহুদী-বিদ্বেষ কমেনি ইতালির ফুটবলে!

    গত সপ্তাহে রোমের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে লাতসিও সমর্থকদের একটি অংশের ইহুদী বিদ্বেষমূলক স্লোগানের পর নড়ে চড়ে বসেছিল ইতালিয়ান ফুটবল। পরের সপ্তাহে সব খেলার আগেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে গণহত্যায় নিহত ইহুদীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালনের সিদ্ধান্ত নেয় ইতালিয়ান ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা। কিন্তু তাতেও বোধ হয় খুব বেশি লাভ হয়নি, গতকাল সিরি আর অনেকগুলো ম্যাচেই সমর্থকদের নীরবতা পালনে অসহযোগীতার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। 

    সিরি আতে জুভেন্টাস-এসপিএল ম্যাচেও নীরবতা পালনের সময় একদল সমর্থক ইতালির জাতীয় সঙ্গীত গেয়েছেন। নীরবতা পালনের আগে অবশ্য বিখ্যাত বই আনা ফ্রাংকের ডায়েরির একটি অংশ পড়ে শোনানো হয়েছে সব স্টেডিয়ামে। রোমা-করোন্তে ম্যাচেও একদল সমর্থক ক্লাবের স্লোগান দিয়ে সেই আনুষ্ঠানিকতাও ভন্ডুল করার চেষ্টা করেছেন। 



    সব কিছুর শুরুটা হয়েছিল রোমের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে, একদল লাতসিও সমর্থকের বর্ণবাদী স্লোগান দেওয়া নিয়ে। এর পর ইতালির প্রধানমন্ত্রী সার্জিও মাতারেল্লা পরিস্থিতিকে 'ভয়াবহ' আখ্যা দিয়ে তদন্ত শুরুর নির্দেশনা দিয়েছেন। 

    সমর্থকদের এমন আচরণে চটেছেন লাতসিও সভাপতিও। সমর্থকদের ইহুদী গণহত্যা সম্পর্কে আরও বেশি জানার তাগাদা দিয়েছেন তিনি, সাথে প্রতি বছর ২০০ জন লাতসিও সমর্থককে বিনামূল্যে আসউইচ জাদুঘর ঘুরে দেখানোর ঘোষণা দিয়েছেন। গতকাল লাতসিও খেলোয়াড়েরাও ম্যাচের আগে আনা ফ্রাংকের ছবি সম্বলিত টিশার্ট পরে অনুশীলনে করেছেন।              

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন