• ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ
  • " />

     

    • ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ

    এবারও বিজ্ঞাপন দিয়ে কোচ খুঁজবে ভারত?

    বিশ্বকাপের পরপরই শেষ হচ্ছে ভারতের বর্তমান কোচ রবি শাস্ত্রীর চুক্তি। যেহেতু বিরাট কোহলির চাওয়াতেই ২০১৭ সালে কোচ করা হয়েছিল শাস্ত্রীকে, ধারণা করা হচ্ছিল তাঁর চুক্তির মেয়াদ আরও বাড়াবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তবে শাস্ত্রীর চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই বিসিসিআই আভাস দিয়েছে, গতবারের মতো এবারও কোচ নির্বাচনের জন্য বিজ্ঞাপন দেবেন তাঁরা। কয়েকজনের সাক্ষাৎকার নেওয়ার পরেই নির্বাচিত করা হবে নতুন কোচ।

    বিশ্বকাপ শেষ হবে ১৪ জুলাই। শাস্ত্রীর চুক্তি শেষ হবে জুলাইয়ের শেষে। ঠিক একই সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাবে ভারত। বিশ্বকাপের পর নতুন কোচ নির্বাচনের জন্য তাই মাত্র দুই সপ্তাহ সময় পাবে বিসিসিআই। অনিল কুম্বলের পদত্যাগের পর গতবার যেমন বিজ্ঞাপন দিয়েছিল তাঁরা, এবারও ঠিক তেমনটা করা হবে।

    জমা পড়া আবেদনের মধ্যে থেকে বাছাই করা কয়েকজনকে ডাকা হবে চূড়ান্ত সাক্ষাৎকারের জন্য। তবে কারা আবেদন করেন, কয়টি আবেদন জমা পড়ে, সেটা দেখার পর শাস্ত্রীকে নিয়ে আবার একদফা ভাববে বিসিসিআই। যদি বিসিসিআইয়ের মনের মতো আবেদনপত্র জমা না পড়ে, তাহলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খন্ডকালীন কোচের দায়িত্ব পালন করবেন শাস্ত্রীই। তাঁর সাথে থাকবেন সঞ্জয় বাঙ্গার( সহকারি কোচ), ভারত অরুণ(বোলিং কোচ) ও রামাকৃষ্ণ শ্রীধর( ফিল্ডিং কোচ)।

    গতবারের মতো এবারও কোচ নির্বাচনে তিনজনকে নিয়ে বিশেষ পরিচালনা কমিটি গঠন করতে চায় বিসিসিআই। সেই কমিটিতে আগের মতোই থাকবেন শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঙ্গুলি ও ভিভিএস লক্ষণ। তাঁরাই কোচের পদের জন্য আবেদন করা ব্যক্তিদের সাক্ষাৎকার নিয়ে বিসিসিআইকে রিপোর্ট দেবেন।

    ধারণা করা হচ্ছে, সাক্ষাৎকারের জন্য নির্বাচিত ব্যক্তিদের তালিকায় সরাসরি ঢুকবেন শাস্ত্রী। গতবারও বিসিসিআই বলেছিল, তখনকার কোচ কুম্বলেও এভাবে সরাসরি তালিকায় থাকবেন। পরে অবশ্য কুম্বলে নিজেই নতুনভাবে আবেদন করেন। এরপর কোহলির সরাসরি হস্তক্ষেপেই নতুন কোচ হন শাস্ত্রী। এই কোচ নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে মোটেও খুশি ছিলেন না গাঙ্গুলি। গাঙ্গুলি তখন বলেছিলেন, কোচ নির্বাচন করার সেই অভিজ্ঞতা ছিল ভয়াবহ!

     

     

    কোহলি যে শাস্ত্রীকে কোচ হিসেবে দেখতে চান, সেটা কারো অজানা না। শেষ পর্যন্ত শাস্ত্রীকেই নতুনভাবে নিয়োগ দেবে কিনা বিসিসিআই, সেটা জানা যাবে বিশ্বকাপের পরেই।