• অ্যাশেজ ২০১৯
  • " />
    X

     

    এজবাস্টনে ভুলে ভরা আম্পায়ারিংয়ে উইলসনের 'রেকর্ড'

    পিটার সিডলের বলটা জো রুটের ব্যাট ছুঁয়ে লাগল প্যাডে। অস্ট্রেলিয়ার আবেদনের পর সবাইকে খানিকটা অবাক করেই এলবিডব্লিউ দিলেন আম্পায়ার জোয়েল উইলসন। তাঁর এমন সিদ্ধান্তের সাথে সাথেই রিভিউ নিলেন রুট, দিলেন একটা হাসিও। রিভিউতে দেখা গেলো, বল আগে রুটের ব্যাটেই লেগেছে। উইলসনকেও বদলাতে হলো তার সিদ্ধান্ত। এজবাস্টনে প্রথম দিন থেকে এমন দৃশ্য বহুবার দেখেছেন সবাই। পুরো ম্যাচে উইলসনের মোট আটটি সিদ্ধান্ত রিভিউ নেওয়ার পর বদলে গেছে, যা টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। 

    এজবাস্টন টেস্টের প্রথম দিনে উইলসন ও আলিম দার ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন মোট আটটি। ম্যাচের পাঁচদিনে সবচেয়ে বেশি ভুল করেছেন উইলসন। তাঁর দেওয়া ১২টি সিদ্ধান্তে রিভিউ নেওয়া হয়েছিল। এর মাঝে আটবারই উইলসনকে নিজের সিদ্ধান্ত পাল্টাতে হয়েছে। 

    ম্যাচের শেষ দিনের প্রথম সেশনে দুইবার রুটকে আউট দিয়েছিলেন উইলসন। দুইবারই রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেছেন রুট। প্রথমবার জেমস প্যাটিনসনের বল লেগ স্টাম্প মিস করত বলেই দেখিয়েছে হক-আই। পরেরবার সিডলের বল রুটের ব্যাটে লেগে প্যাডে লাগে।  

    রিভিউ পদ্ধতি চালু হওয়ার পর এক ম্যাচে মাত্র দুইজন আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই এতবার বদলাতে হয়েছে। উইলসন ছুঁয়েছেন ভারতের আম্পায়ার সুন্দারাম রবি ও শ্রীলংকান আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার এই অনাকাঙ্ক্ষিত ‘রেকর্ডকে’। ২০১৬ সালে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড টেস্টে আটবার নিজের সিদ্ধান্ত বদলাতে হয়েছিল ধর্মসেনাকে। ২০১৭ সালে কলম্বোতে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ম্যাচে একই সংখ্যক সিদ্ধান্ত রিভিউয়ে পর বদলান রবি। কিছুদিন আগে আইসিসির আম্পায়ারদের এলিট প্যানেল থেকে রবিকে সরিয়ে আনা হয় উইলসনকে। 

    একটু হলেই অবশ ধর্মসেনা ও রবিকে ছাড়িয়ে যেতে পারতেন উইলসন। ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসের শেষভাগে জস বাটলারকে এলবিডব্লিউ না দেওয়ায় রিভিউ নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে বল একটুর জন্য স্টাম্প মিস করলে নিজের সিদ্ধান্ত পাল্টানো থেকে বেঁচে যান উইলসন। 

    উইলসনের সাথে যৌথভাবে সবচেয়ে বেশিবার সিদ্ধান্ত বদলের ‘রেকর্ডের’ অধিকারী ধর্মসেনা অ্যাশেজের তৃতীয় ও চতুর্থ টেস্টে টিভি আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন। পঞ্চম ম্যাচে মাঠেই থাকবেন তিনি।