• অ্যাশেজ ২০১৯
  • " />

     

    স্মিথ কেনো আউট হন না ভেবেই পাচ্ছেন না আর্চার

    স্টিভ স্মিথকে কীভাবে অল্প রানে আউট করা যায়, ইংল্যান্ড দল সেটা নিয়ে বিস্তর গবেষণা করতেই পারে। এবারের অ্যাশেজে এক স্মিথের কাছেই ম্লান পুরো ইংল্যান্ড। ওল্ড ট্রাফোর্ডের শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসেও তিনি করেছেন ফিফটি। গতকাল ছয় উইকেট নিয়ে দিনটা অবশ্য স্মিথের হতে দেননি জোফরা আর্চার। দিনশেষে আর্চার বলছেন, স্মিথকে কেনো সহজে আউট হন না, সেটায় তিনি যারপরনাই অবাক। 

    হালকা ফ্লু নিয়েই ওল্ড ট্রাফোর্ডে খেলতে নেমেছিলেন স্মিথ। আর্চারও জানালেন, স্মিথ নিজের শতভাগ দিতে পারছিলেন না ক্রিজে, ‘তাকে একটু অন্যরকম লাগছিল। সবসময় যেভাবে ব্যাটিং করে কিংবা দৌড়ায়, তেমনটা আজ দেখা যায়নি।’ 

    ফ্লু নিয়েও পুরো সিরিজের মতো এবারও অস্ট্রেলিয়ার সেরা ব্যাটসম্যান স্মিথই। ১৪৫ বল খেলে স্মিথ করেছেন ৮০ রান। ক্রিস ওকসের বলে এলবিডব্লিউ হয়েই ফিরেছেন তিনি। আর্চার জানালেন, স্মিথ কেন আউট হন না ভেবেই পাচ্ছেন না তিনি, ‘এটা একটু অবাক করার মতো ব্যাপার। যতবারই সে ব্যাটিংয়ে নামে ততবারই এটা ভাবি। সে তো আউটই হয় না! খারাপ শট খেললেও সেটা দুই ফিল্ডারের মাঝে পড়ে। সিরিজের শুরু থেকেই এমনটা হচ্ছে। সে ভালো ব্যাটসম্যান এতে সন্দেহ নেই। কিন্তু তার আউট না হওয়ার ব্যাপারটা আমি বুঝে উঠতে পারছি না।’ 

     

     

    এবারও স্মিথকে আউট করতে পারেননি আর্চার। ওকসের বলে আউট হওয়াতেও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন তিনি, ‘আমরা জানতাম একটা না একটা বল তো সে মিস করবেই। মজার ব্যাপার হচ্ছে, লর্ডসেও এই ওকসের বলেই সে আউট হয়েছিল।’