• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ইউনাইটেডের রক্ষণাত্মক ফুটবলে বিরক্ত নন ক্লপ

    ওল্ড ট্রাফোর্ড যেন ইয়ুর্গেন ক্লপকে জয় নিয়ে ফিরতে দিতে চায় না। নাহলে যে লিভারপুলের জয়রথ থামাতে পারছিল না কেউই, তাদেরকেই রুখে দিয়েছে বাজেভাবে মৌসুম শুরু করা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ড ট্রাফোর্ডে এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে জয়শুন্য থাকলেন ক্লপ। ম্যাচের পর ক্লপ বলছেন, ইউনাইটেড অতীতের মতো এবারও অতিরিক্ত রক্ষণাত্মক ফুটবলই খেলেছে। যদিও তাদের এই খেলার ধরনে খুব একটা আপত্তি নেই ক্লপের। 

    পুরো ম্যাচে ইউনাইটেডের বল পজেশন ছিল মাত্র ৩২ শতাংশ। ওলে গানার সোলশারের দল কাল খেলছে পাঁচজন ডিফেন্ডার নিয়ে। ৩১ মিনিটে মার্কাস র‍্যাশফোর্ডের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর রক্ষণটা আরও দৃঢ়ভাবেই করেছে তারা। শেষ মুহূর্তে অ্যাডাম লালানা গোল করে লিভারপুলের হার এড়িয়েছেন।

    ক্লপ বলছেন, ইউনাইটেড সবসময়ই তাদের বিপক্ষে রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলে, ‘এই বছর, আগের বছর, তার আগের বছর; ইউনাইটেড শুধু রক্ষণাত্মক ফুটবলই খেলেছে। তাদের এমন খেলায় অবশ্য আমি বিরক্ত না। আমি এমন মানুষ নই যিনি এটা নিয়ে চিন্তা করবে। আমি সমালোচনা করছি না, কিন্তু আমরা যখনই ওল্ড ট্রাফোর্ডে খেলতে আসি, তারা এরকম ফুটবল খেলে। যখন ইউনাইটেড লিভারপুলের সাথে খেলে, তখন আপনি ভাববেন দুই দলই একইভাবে খেলবে। ইউনাইটেডের রক্ষণভাগ অনেক ভালো মানের। তাও আমি এসব নিয়ে অজুহাত দাঁড় করাতে চাই না। আমরা আরও ভালো করতে পারতাম।’ 

    ইউনাইটেডের এমন রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলা লিভারপুলের শক্তিমত্তারই প্রমাণ, মানছেন ক্লপ, ‘এটাকে প্রশংসা হিসেবে চালিয়ে দিতে চাই না। ব্যাপারটা হচ্ছে আমরা ভালো দল। কীভাবে আমাদের আটকানো যায় সবাই সেটাই ভাববে। ইউনাইটেড দারুণ ডিফেন্ডিং করেছে। সাথে র‍্যাশফোর্ড ও জেমসের মতো গতিময় ফুটবলাররাও ছিল সাথে।’

    একটি আবেদন

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন