• জাতীয় ক্রিকেট লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'ডেড রাবার'-এ শামসুর-মার্শালের জোড়া সেঞ্চুরি

    তৃতীয় দিনশেষে 
    ২য় স্তর, বরিশাল
    বরিশাল ১ম ইনিংস ৪১৪ অল-আউট (রাব্বি ১৪১, সালমান ৭১, মইন ৭৫, তাসকিন ৪/৬৭) ও ২য় ইনিংস ৩০/৩* 
    ঢাকা মেট্রো ১ম ইনিংস ৪৬৬ (শামসুর ১০৩, আইয়ুব ১০৯)


    সিলেট চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রথম স্তরে ওঠা নিশ্চিত করেছে আগেই, দ্বিতীয় স্তরে নেই অবনমনের হিসাবও। শেষ রাউন্ডে একমাত্র ডেড-রাবারে তাই পরিণত হয়েছে এ ম্যাচ। বরিশালের ৪১৪ রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে ঢাকা মেট্রো তুলেছে ৪৬৬ রান, শামসুর রহমান ও মার্শাল আইয়ুবের সেঞ্চুরির সঙ্গে আল-আমিনের ৯২ ও জাবিদ হোসেনের ৬২ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য ৩০ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসেছে বরিশাল। 

    সেঞ্চুরি থেকে যথাক্রমে ১০ ও ১৫ রান দূরে থেকে দিন শুরু করেছিলেন শামসুর ও আইয়ুব। শামসুর মাইলফলকে গেছেন ২১৪ বলে, আইয়ুব খেলেছেন ১৫৭ বল। অবশ্য সেঞ্চুরি বড় করতে পারেননি দুজনের কেউই। সোহাগ গাজির বলে বোল্ড হওয়ার আগে শামসুর করেছেন ১০৩ রান, আইয়ুব ১০৯ রান করে হয়েছেন রান-আউট। 

    ৬ষ্ঠ উইকেটে আল-আমিন ও জাবিদ তুলেছেন ১১২ রান। ফজলে রাব্বির বলে বোল্ড হয়ে ৮ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছেন আল-আমিন, ৯টি চারের সঙ্গে তিনি মেরেছেন ২টি ছয়। ৮ম উইকেটে আরাফাত সানির সঙ্গে ৪২ রান যোগ করা জাবিদ শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ১৩৯ বলে ৬২ রান। 

    ৮ জন বোলার ব্যবহার করেছে বরিশাল, ৯৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে সেরা বোলার সোহাগ গাজি। 

    ব্যাটিংয়ে নেমে আরাফাত সানি ও তাসকিন আহমেদের তোপে পড়েছে বরিশাল। শুরুতে শাহরিয়ার নাফীসকে বোল্ড করেছেন তাসকিন, এরপর আবু সাঈম ও শামসুল ইসলাম এলবিডব্লিউ হয়েছেন আরাফাত সানির বলে। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন