• এসএ গেমস
  • " />
    X

     

    ভুটান দিয়ে শুরু হচ্ছে জামালদের সোনা জয়ের মিশন

    কবে, কখন 
    বাংলাদেশ-ভুটান 
    এসএ গেমস, পুরুষদের ফুটবল 
    ২ ডিসেম্বর, দুপুর ১.১৫ 


    অনুশীলন ক্যাম্প সময়মতো শুরু করতে না পারা, প্রতিপক্ষ নিয়ে অনিশ্চয়তা এর পর টুর্নামেন্ট শুরুর তিনদিন আগে নতুন ফিক্সচারে পর পর দুইদিন খেলা পড়া- বাংলাদেশ ফুটবল দলের এসএ গেমসের প্রস্তুতি এলোমেলো হয়েছে বারবার। বাংলাদেশের দশ দিনের অনুশীলন ক্যাম্প কমে হয়েছে তিনদিনের, বদল এসেছে টুর্নামেন্টের ধরনেও। লিগ পদ্ধতিতে এখন বাকি ৪ দলের সঙ্গেই খেলতে হবে বাংলাদেশকে। 

    বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে ঢাকা ছাড়ার আগে এসএ গেমসে সোনা জয়ের লক্ষ্যের কথা জানিয়ে গেছেন। অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়াও জানেন ভালো কিছু করে দেখানোর এটাই সুবর্ন সুযোগ। এসএ গেমসে ফুটবলে এবার অংশ নিচ্ছে না ভারত, নেই পাকিস্তানও। ৫ দলের সবাই একে অপরের বিপক্ষে খেলবে, তৃতীয় হওয়া দল পাবে ব্রোঞ্জ। প্রথম ও দ্বিতীয় হওয়া ফাইনাল ম্যাচে নির্ধারণ হবে সোনা ও রুপা।

    সোনা জয়ের লক্ষ্যে বাংলাদেশের মিশন শুরু হচ্ছে ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। এর ২৮ ঘন্টা পর একই ভেন্যুতে আবার মালদ্বীপের বিপক্ষে নামতে হবে জেমি ডের দলকে। পর পর দুইদিন ম্যাচ নিয়ে বাংলাদেশ কোচের অসন্তোষ তো আছেই, তবে আপাতত ম্যাচেই মনোযোগ রাখতে চান তিনি। ভুটানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে একটু মজা করেই সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, এমন ফিক্সচার আগে দেখেননি, আর কোনোদিন দেখতেও চান না! 

    অক্টোবরেও ভুটানের বিপক্ষে দুইটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে জেমি ডের দল। দুই ম্যাচেই জিতেছে বাংলাদেশ। এসএ গেমসে অবশ্য দুইদলেরই অনুর্ধ্ব-২৩ দলের সঙ্গে আছেন তিনজন সিনিয়র খেলোয়াড়। জামাল ভুঁইয়া, ইয়াসিন খান ও নাবিব নেওয়াজ আছেন সিনিয়র কোটায়। দলটার গোলরক্ষক বাদ দিলে ডিফেন্স, মিডফিল্ড আর আক্রমণভাগেও আছেন জাতীয় দলের ফুবটলাররাই।অলিম্পিক দলটাও তাই জাতীয় দলের মতোই বাংলাদেশের। 

    গোলরক্ষক হিসেবে খেলার কথা আনিসুর রহমান জিকোর। বসুন্ধরা কিংসের হয়ে গত মৌসুমে নজর কেড়েছেন তরুণ এই গোলরক্ষক। সবমিলিয়ে বাংলাদেশ দলে তাই দারুণ স্থিতিশীলতা। তবে ভয়ের কারণও আছে। অধিনায়ক ও কোচ আগেই বলে গেছেন অনুশীলনে ঘাটতি রয়ে গেছে এবার। সেই ঘাটতিটা কতোখানি আর ম্যাচে কতটুকু প্রভাব ফেলে সেটাই এখন একমাত্র দুশ্চিন্তার বিষয় বাংলাদেশের জন্য। অন্যদিকে ভুটান তাদের প্রস্তুতি শুরু করেছিল বহু আগেই। দুই মাস আগে বাংলাদেশের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলতে ভুটান নিয়ে এসেছিল তাদের অনুর্ধ্ব-২৩ দলটাই। ভুটান কোচ তখন জানিয়েছিলেন এসএ গেমসের প্রস্তুতি নিতেই প্রীতি ম্যাচ খেলতে এসেছে তার দল। প্রস্তুতির দিক দিয়ে তাই ভুটানের চেয়ে পিছিয়েই আছে বাংলাদেশ। 

    সবকিছুর সঙ্গে যোগ হচ্ছে চাপও। যেহেতু কাগজে কলমে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে অনেকটা, তাই চাপও সঙ্গী এবার। তবে বাংলাদেশ এই টুর্নামেন্টের পরিষ্কার ফেভারিটও নয়। স্বাগতিক নেপাল বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে বাংলাদেশের জন্য। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের সবশেষ ম্যাচ নেপালের সঙ্গে। এর আগেই ফাইনালের জায়গাটা নিশ্চিত করতে চাইবেন ডে।

    সবকিছুর আগে বাংলাদেশের জন্য আপাতত টুর্নামেন্টটা দুইদিনের। টানা দুইদিন সফলভাবে পার করতে পারলে অনেকটাই সুগম হবে ৯ বছর পর ফুটবলে বাংলাদেশের সোনা জয়ের রাস্তা।