• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    মালদ্বীপকে উড়িয়ে দিলেন শান্তরা, নেপালকে সালমারা

    আইসিসি ক্রিকেটের বিশ্বায়নের জন্য যে ১০০টি দলকে টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস দিয়েছে তার মধ্যে মালদ্বীপও আছে। র‍্যাংকিংয়ে তারা অবশ্য ৭৬ নম্বরে, বাংলাদেশের সঙ্গে শক্তির পার্থক্যটাই আজ দেখা গেল এসএ গেমসে। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌম্য, শান্তরা মালদ্বীপকে উড়িয়ে দিয়েছেন ১০৯ রানে।

    কীর্তিপুরে শুরুতে ব্যাট করে নাইম শেখ ও সৌম্য সরকার গড়েন ৫৯ রানের উদ্বোধনী জুটি। ২৮ বলে ৩৮ রান করে রান আউট হয়ে যান নাঈম। এরপর সৌম্য ও অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাটে এগিয়ে যেতে থাকে বাংলাদেশ। দুজনের জুটিতে রান ওঠে ৫৩, এরপর ৩৩ বলে ৪৬ রান করে আউট হয়ে যান সৌম্য। আফিফ নেমে ৯ বলে ১৬ রানের ক্যামিও খেলেছেন এরপর। শেষ দিকে গিয়ে শান্তও হয়ে উঠেছিলেন আগ্রাসী, ফিফটিটা পেয়ে যাবেন বলেই মনে হচ্ছিল। কিন্তু শেষ ওভারে গিয়ে আউট হয়ে গেছেন ৩৮ বলে ৪৯ রান করে। শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেট হারিয়ে ২০ ওভার শেষে ১৭৪ রান তুলেছে বাংলাদেশ।

    এই ম্যাচে মালদ্বীপের সাফল্য বোধ হয় বলা যায়, প্রথম ৪ ওভারে উইকেট দিয়ে আসেননি ওপেনাররা। এরপর বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলাম এসেছেন, নিয়েছেন প্রথম উইকেট। এক প্রান্ত থেকে বল করে গেছেন তানভীর, ৪ ওভার শেষে ১৯ রানে নিয়েছেন ৫ উইকেট। স্পিনারদের বলেই আসলে ডুবেছেন মালদ্বীপের ব্যাটসম্যানরা, এরপর আফিফ হোসেন ও লেগ স্পিনার মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদিও পেয়েছে দুইটি করে উইকেট। পেসারদের হয়ে একমাত্র উইকেট পেয়েছেন সৌম্য সরকার। শেষ পর্যন্ত পুরো ২০ ওভার খেলতে পারেনি মালদ্বীপ, ১৯.২ ওভারেই অলআউট হয়েছে ৬৫ রানে।  

    ওদিকে মেয়েরা শ্রীলংকার পর আজ হারিয়েছে নেপালকে, ফাইনালের পথে এগিয়েছে আরেকটু। আজ শুরুতে বাংলাদশের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে নেপালের মেয়েরা ১৯.২ ওভারে অলআউট হয়ে গেছে ৫০ রানে। ৪ ওভার বল করে ৮ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়েছেন রাবেয়া খান। এই রান তাড়া করে ৭.৪ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ। মুর্শিদা খাতুন অপরাজিত ছিলেন ২৩ রানে, আয়েশা রহমান ছিলেন ২৭ রানে।