• বঙ্গবন্ধু বিপিএল
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    মোস্তাফিজের 'অর্ধেকের সমান' কে আছে বাংলাদেশে, প্রশ্ন মাশরাফির

    মোস্তাফিজুর রহমানের ‘অর্ধেকের সমান কেউ’ বাংলাদেশে আছে কিনা, এমন প্রশ্ন তুলেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তিনি বলছেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত মানুষদের মোস্তাফিজকে নিয়ে সমালোচনার চেয়ে তার প্রতি আরও যত্নবান হওয়া উচিৎ। ফর্মহীনতার ভেতর দিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ বোলাররা কেন ফিরে আসতে পারছেন না, সে প্রশ্নও তুলেছেন তিনি। 

    মোস্তাফিজকে নিয়ে ওঠা সমালোচনাটা অবশ্য চলছে বেশ কিছুদিন ধরেই। তবে এই বিপিএলে বেশ কয়েকবারই ঝলক দেখিয়েছেন, রংপুরের বিপিএল আগেভাগে শেষ হয়ে গেলেও ১২ ইনিংসে ৭.০১ ইকোনমিতে বোলিং করে ২০ উইকেট নিয়ে এখন পর্যন্ত তালিকার শীর্ষে তিনি। মোস্তাফিজের মতো তালিকায় শুরুর দিকে আছেন তরুণ পেসার মেহেদি হাসান রানা, বোলিং দিয়ে আলো কেড়েছেন হাসান মাহমুদের মতো তরুণও। 

    মাশরাফি বলছেন, এদেরকে গড়ে তুলতে হবে আত্মবিশ্বাসী করে, “এই মুহূর্তে যারা শেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলে এসেছে- আল আমিন ভালো করছে, শফিউল খুব ভালো করছে, মোস্তাফিজ ভালো করছে। মোস্তাফিজ হয়তো ভারতে ভালো খেলতে পারেনি। এখন সবাই যেহেতু ছন্দে আছে আশা করি ওরা এটা চালিয়ে যাবে। ক্রিকেটারদের সেভাবে আত্মবিশ্বাসী করে তোলা জরুরি।”

    আর সে কারণেই মোস্তাফিজের সমালোচনা নিয়ে বলেছেন তিনি, “মোস্তাফজিকে যত্ন করা খুবই জরুরী। তাকে নিয়ে সমালোচনা যদি আমরাই করতে থাকি- আপনাদের (সাংবাদিকদের) কথা আলাদা, দর্শকদের কথা আলাদা। আপনারা চাইবেন সে ভাল করুক, দর্শকরা চাইবে ভাল করুক। কিন্তু আমি যখন মোস্তাফিজের দায়িত্বে আছি, তখন কেন আমি আপনাদের সামনে এসে মোস্তাফিজের সমালোচনা করব? তখন আমি মোস্তাফিজকে আগলে রাখার চেষ্টা করব। যদি বাংলাদেশে ‘মোস্তাফিজের অর্ধেকের সমানও কেউ’ থাকে, তো ভাল। আমাকে ‘মোস্তাফিজের অর্ধেকের সমান ভাল’ কাউকে দেখান বাংলাদেশে। আছে? যদি থাকে, দেখান। সেটা নাই।”
     


    রংপুর সতীর্থদের সঙ্গে উইকেট উদযাপন করছেন মোস্তাফিজ/বিসিবি


    “মোস্তাফিজ ২১ উইকেট পেয়ে এসেছে বিশ্বকাপে। হয়তো ইকোনমি রেট, বা এমন সমস্যা থাকতে পারে। কিন্তু এই জিনিসটা আমি ঠিক করব কীভাবে? এটা ঠিক করার উপায় আছে নিশ্চয়ই। পৃথিবীতে অনেক বোলার আছে, যারা ফর্মহীনতায় গিয়েছে, আবার ফিরে এসে ভাল করেছে। আমাদের দেশে কেন হচ্ছে না? যারা মোস্তাফিজকে নিয়ে কাজ করছে মাঠে, তারা আপনাদের ভাষাতেই কথা বলছে, বাইরে যেটা কথা হচ্ছে সেটা নিয়েই কথা বলছে। নিজস্ব চিন্তা-ভাবনা কই? মোস্তাফিজকে নিয়ে আপনাদের সামনে সমালোচনা করে পরদিন সকালে আবার তাকে নিয়ে কাজ করতে যাচ্ছি, মোস্তাফিজ কি মানুষ না? মোস্তাফিজ তখন তার মনের সমস্যা কীভাবে শেয়ার করবে (তাদের সঙ্গে)? এদেরকে মানসিকভাবে চাঙা করার দরকার আছে। যারা উঠে আসছে, তাদেরকে এগিয়ে নিতে হবে। সবাই গা ভাসিয়ে দিলে কীভাবে চলবে?” 

    “একটা বিষয় হচ্ছে যে তাদের যারা মনিটর করছে তারাও যদি আপনাদের সামনে এসে সমালোচনা করে তো খুব স্বাভাবিকভাবে সে আরও ভেঙে পড়বে। যখন ভালো করছে ভালো বলবে, যখন খারাপ করছে তখন খারাপ বলবে- এটা আমি মনে করি না যে এটা তাদের সাথে যারা কাজ করে ওদের কাজ। তাদের কাজ হচ্ছে সবসময় ক্রিকেটারদের ব্যাক-আপ করা। তারা যেন ওদের পাশে থাকে। আর এই সময়টাকে যেভাবে ব্যবহার করা যায় বা যদি কেউ ভালো করে এটাকে কীভাবে এক-দুই ধাপ এগিয়ে নেয়া যায়, সেটার চেষ্টা করা। এটা ওদের কাছে যারা আছে তাদের দায়িত্ব বলে আমি মনে করি।”

    মোস্তাফিজের মতো তার ক্ষেত্রেও এমন সমালোচনা হয়েছে কিনা, সেটির জবাবে মাশরাফি বলেছেন, “আমার ক্ষেত্রে যেটা হয়েছে, সেটা অগোচরে। মোস্তাফিজের সমালোচনা আপনারা করবেন, সেটা ঠিক আছে। একটা দর্শক সেভাবেই দেখবে। তবে আমি যখন তার সঙ্গে কাজ করছি, আমি তখন মোস্তাফিজের একটা অংশ। আমারও তো একটা দায়িত্ব আছে তাকে ঠিক করার। আমি যখন সমালোচনা করছি, তখন আমিও সমালোচিত হব। (তখন প্রশ্ন আসবে), তাহলে তুমি কী কাজ করছো মোস্তাফিজের সঙ্গে।”  
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন