• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    বোর্ডের অব্যবস্থাপনার কারণেই ফিল্যান্ডারের হঠাৎ অবসর!

    হঠাৎ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ভারনন ফিল্যান্ডার। অবশেষে দক্ষিণ আফ্রিকার এক দৈনিকের সাথে সাক্ষাৎকারে অবসরের কারণ নিয়ে মুখ খুললেন এই পেসার। নিজের অবসরের সিদ্ধান্ত নেয়ার পেছনে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে বর্তমান বিশৃঙ্খল অবস্থাকে দায়ী করেছেন প্রোটিয়াদের হয়ে ৬৪ টেস্ট খেলা ফিল্যান্ডার। গত ডিসেম্বরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে সেই সিরিজের মধ্য দিয়েই অবসরে যাওয়ার কথা ঘোষণা করেন তিনি। তখন থেকেই সবার মাঝে তার অবসরের কারণ নিয়ে কৌতূহল ছিল।

    বেশ কিছুদিন ধরে একের পর এক সমস্যায় জর্জরিত দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট। বোর্ডের প্রধান নির্বাহী  থাবাং মোরোকে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটারদের অভিযোগ ছিল অনেক। মূলত ক্রিকেটারদের সঙ্গে অসদাচরণ, অব্যবস্থাপনা, ক্রিকেটারদের বাণিজ্যিক বিষয়গুলোতে হস্তক্ষেপসহ আরো কিছু অভিযোগে প্রধান নির্বাহী এবং পুরো বোর্ডের পদত্যাগ চাচ্ছিল ক্রিকেটাররা। দাবি পূরণ না হলে সাউথ আফ্রিকান ক্রিকেটার্স এ্যাসোসিয়েশন ইংল্যান্ড সিরিজের সময় ধর্মঘটে যাওয়ার ব্যাপারেও ভাবছিল। 

    এই অবস্থায় দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড গত বছরের ৬ ডিসেম্বর প্রধান নির্বাহী মোরোকে বরখাস্ত করে। ফিল্যান্ডারও তার সাক্ষাৎকারে বোর্ডের অব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করেন, “একজন খেলোয়াড় হিসেবে এই বিষয়গুলো নেয়া আমার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছিল না। সিএসএ-র (ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা) আগের ম্যানেজমেন্ট শুধু নিজেদের নিয়েই ভাবত। খেলোয়াড়দের নিয়ে ভাবার তাদের কোনো সময় ছিল না। এমন অনেক ঘটনা ঘটছিল, যা আমার নিয়ন্ত্রণের বাইরে। তাই তখন আমি আমার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে ভেবেছি, এবং অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার বয়স এখন ৩৫, দেশের হয়ে অনেকদিন ক্রিকেট খেলেছি। ক্রিকেট বোর্ডে বিশৃঙ্খল অবস্থা না থাকলে হয়ত আরো কিছুদিন খেলতাম।”

    তবে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথকে বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার বিষয়টিকে ইতিবাচক পদক্ষেপ বলছেন ফিল্যান্ডার, “এতে করে ( স্মিথের নিয়োগে) বোর্ডের প্রতি সবার আস্থা বাড়বে। আশা করি, প্রশাসনিক পর্যায়ে এবং খেলার মাঠে এর ইতিবাচক প্রভাব দেখা যাবে।” দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৬৪ টেস্ট খেলে ২২৪ উইকেট পেয়েছেন এই পেসার।

    আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও ক্রিকেটকে কিন্তু এখনই বিদায় বলছেন না এই পেসার। কলপ্যাক চুক্তির আওতায় ইংল্যান্ডে সমারসেট কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলা চালিয়ে যাবেন তিনি।