• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ নয়, স্টার্কের কাছে পরিবারই আগে

    ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগে মিচেল স্টার্ক শেষ খেলেছিলেন ৫ বছর আগে। এরপর কখনো চোটের, কখনো বিশ্রামের প্রয়োজনে এড়িয়ে গেছেন সেসব লিগের লোভনীয় চুক্তিগুলোকে। তবে এবার টি-টোয়েন্টি লিগগুলোতে সাম্প্রতিক সময়ে তার কম অংশগ্রহণের কারণ নিজেই জানালেন অকপটে। মূলত পরিবারকে সময় দিতেই আইপিএল বা বিগ ব্যাশের মতো লিগগুলোতে অংশ নেওয়া কমিয়ে দিয়েছেন স্টার্ক।

    ২০১৫ সালের ২২ মে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে প্লে-অফ ম্যাচ খেলেছিলেন, সেটিই ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগে তার শেষ ম্যাচ। এরপর ২০১৮ সালে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলার কথা ছিল তার, তবে চোটের কারণে শেষ পর্যন্ত আর অংশ নেননি সেবার। তবে ফ্রাঞ্চাইজি লিগগুলোতে না খেললেও সীমিত ওভারের ফরম্যাটগুলোতে কিন্তু নিয়মিত বল হাতে নিজের জাত চিনিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ২০১৯ বিশ্বকাপেও আসরের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক ছিলেন তিনি।

     


    তাই স্বাভাবিকভাবেই ভক্তদের মনে প্রশ্ন জাগে, টি-টোয়েন্টি লিগগুলোতে কেন অনিয়মিত তিনি, প্রশ্নের উত্তর দিলেন স্টার্ক নিজেই, “একটি ক্রিকেট শিডিউলে তিন ফরম্যাটে খেলা অনেক কঠিন। আর আমার স্ত্রীও ক্রিকেট খেলে, তার শিডিউল আবার ভিন্ন। আর এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই আমি টি-টোয়েন্টি লি গুলোতে কম অংশ নিই, যাতে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে পারি। কারণ আইপিএল যে সময়টায় হয় তখন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটেও তেমন কোন সিরিজ থাকে না। আর শুধু আইপিএল নয়, পরিবারকে সময় দিতে আমি বিগ ব্যাশেও অংশ নিচ্ছি না।”

    তবে ভবিষ্যতে এই লিগগুলোতে খেলার বিষয়টিকে একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না স্টার্ক, “আমি অবশ্যই খেলতে চাই। আইপিএল, বিগ ব্যাশ সবগুলোতেই অংশ নিতে চাই। কোন লিগের নির্দিষ্ট মৌসুমে না খেলার সিদ্ধান্ত আমি অনেক ভেবে-চিন্তে নিই। আমি ২-৩ বছরের জন্য না খেলার সিদ্ধান্ত নিই না, বরং যখন যে লিগের প্রস্তাব আসে সেটির শিডিউল অনুযায়ী আমি খেলার জন্য কতটা তৈরি সেটি ভেবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি।”