• বুন্দেসলিগা
  • " />

     

    নিজের রেকর্ডও ছাড়িয়ে গেলেন লেভানডফস্কি

    রবার্ট লেভানডফস্কি ছাড়িয়ে গেলেন নিজেকেই। বেয়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে বুন্দেসলিগায় মৌসুমের ৩০ তম গোল করেছেন। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে লেভানডফস্কির গোলসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৪। পেশাদার ক্যারিয়ারে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের ব্যক্তিগত রেকর্ড ছুঁয়েছেন তিনি। আর ৪-২ গোলের জয়ে বায়ার্ন মিউনিখ আরেকটু এগিয়েছে শিরোপার পথে। টানা অষ্টম শিরোপার সঙ্গে তাদের দূরত্ব আর ২ জয়। অবশ্য বরুশিয়া ডর্টমুন্ড পা পিছলে গেলে আরও আগেই নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে বায়ার্নের শিরোপা।



    লেভারকুসেনের মাঠে অবশ্য শুরুটা ভালো ছিল না বায়ার্নের। ম্যাচের ৯ মিনিটে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লুকাস আলারিওর গোলে পিছিয়ে পড়েছিল বায়ার্ন। তবে গোল খেয়েই হুশ ফেরে বায়ার্নের। প্রথমার্ধ শেষের আগে ৩ গোল দিয়ে ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করে ফেলে বায়ার্ন।

    বায়ার্নকে সমতায় ফিরিয়েছিলেন কিংসলে কোমান। তাতে অবশ্য বড় অবদান ছিল লিওন গোরেতস্কার। গোরেতস্কা এরপর নিজেও গোল করেছেন। বক্সের বাইরে থেকে বাম পায়ের নিচু শটে প্রথমবারের মতো বায়ার্নকে লিড এনে দিয়েছিলেন। বিরতির খানিকক্ষণ আগে সার্জ গ্যানাব্রি যোগ করেন বায়ার্নের তৃতীয় গোল।

    লেভারকুসেন অবশ্য ভালো ফর্মে থেকেই বায়ার্নের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল শেষ ১৪ ম্যাচে তারা হেরেছিল মাত্র একটিতে। তবে উঠতি তারকা কাই হাভার্টজের অনুপস্থিতি লেভারকুসেন টের পেয়েছে সময় বাড়ার সঙ্গেই। চোটের কারণে এই ম্যাচে খেলা হয়নি হাভার্টজের।  

    প্রথমার্ধেই খেলার ফল প্রায় নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল। পরে লেভানডফস্কি ৬৬ মিনিটে আরেক গোল করে ম্যাচটা আরও সহজ করে ফেলেন দলের জন্য। শেষদিকে ১৭ বছর বয়সী ফ্লোরিয়ান ভির্টজ বদলি হিসেবে নেমে দলকে সান্ত্বনার একটি গোল এনে দেন।

    ৩০ ম্যাচ শেষে বায়ার্ন মিউনিখের পয়েন্ট ৭০। লিগে বাকি আর ৪ ম্যাচ। দুইয়ে থাকা বরুশিয়া ডর্টমুন্ড এমরে চানের একমাত্র গোলে হারিয়েছে হার্থা বার্লিনকে। বায়ার্নের চেয়ে এখনও ৭ পয়েন্টে পিছিয়ে ডর্টমুন্ড।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন