• বুন্দেসলিগা
  • " />

     

    লেভানডভস্কিতে জার্মান কাপের ফাইনালে বায়ার্ন

    ফুল টাইম

    বায়ার্ন মিউনিখ ২ - ১ ফ্রাঙ্কফুর্ট


    রবার্ট লেভানডভস্কিতে হাঁপ ছেড়ে বাঁচল বায়ার্ন মিউনিখ। জার্মান কাপ সেমিফাইনালে ফ্রাঙ্কফুর্টের বিপক্ষে বাভারিয়ানদের জয়টা সহজে আসেনি। দলের পোলিশ গোল মেশিনের কল্যাণে টানা তৃতীয়বারের জার্মান কাপের ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বায়ার্ন।

    বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন চলছে বিশ্বজুড়ে। সেই আন্দোলনের আঁচ পড়েছে ফুটবলেও। বিভিন্ন ক্লাব এবং খেলোয়াড়রা সেই আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় জার্মান কাপ সেমি ফাইনালেও এঁটে থাকল বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন। সফরকারী দল ফ্রাঙ্কফুর্টের অ্যাওয়ে জার্সিতে মূল স্পন্সরের নামের জায়গায় কালো অক্ষরে শোভা পেয়েছে হ্যাশট্যাগ  #ব্ল্যাকলাইভসম্যাটার।


    অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচের শুরু থেকেই ফ্রাঙ্কফুর্টকে খোলসবন্দি করে রাখে বায়ার্ন। একের পর এক আক্রমণে সফরকারীদের পর্যুদস্ত করে ম্যাচের ১৪ মিনিটেই প্রথম গোলের দেখা পেয়ে যায় তারা। থমাস মুলারের ক্রসে হেড করে দলকে ম্যাচে এগিয়ে দেন বক্সের ভেতর ফাঁকায় দাড়িয়ে থাকা ক্রোয়েশিয়ান পেরিসিচ। এরপর প্রথমার্ধে আর গোল না হলেও বায়ার্নের আক্রমণের কোনও কমতি ছিল না। এসময় পেরিসিচ, কিংসলে কোম্যান এবং লেভানডভস্কিরা গোলমুখের আশপাশের ঘোরাফেরা করলেও বল আর জালে পাঠানো সম্ভব হয়নি।

    ২০১৮ জার্মান কাপ ফাইনালে বায়ার্নকে হারানো ফ্রাঙ্কফুর্ট ছন্দ খুঁজে পায় দ্বিতীয়ার্ধে। বদলি ডা কস্তার বরাতে ৬৯ মিনিটে গোলও শোধ করে দেয় তারা। প্রথমার্ধের বায়ার্নকে তখন খুঁজে পাওয়া দায়। তবে গোল হজমের মিনিট পাঁচেক পরেই বাভারিয়ানদের ত্রাতা হয়ে এলেন লেভানডভস্কি। মুলারের ফ্লিক ধরে গোলমুখে দাড়িয়ে ট্যাপ-ইন ফিনিশে বায়ার্নের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। শুরুতে সহকারী রেফারি অফসাইডের পতাকা তুললেও পরে ভিএআর গোলটিকে বৈধ ঘোষণা করে। আর এই মৌসুমে লেভানডভস্কির ৪৬ তম গোলের মাধ্যমেই শেষ পর্যন্ত শিরোপা জয়ের মিশনে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল বায়ার্ন মিউনিখ।

    আগামী ৪ জুলাই বার্লিনে অনুষ্ঠিত হবে জার্মান কাপের এবারের ফাইনাল। বায়ার লেভারকুজেনের বিপক্ষে সেদিন ২০ তম জার্মান কাপ জয়ের মিশনে নামবে হানসি ফ্লিকের দল।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন