• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ক্লপের দলকে ফার্গুসনের ইউনাইটেডের মতো ধারাবাহিক হিসেবে দেখছেন না সোলশার

    দীর্ঘ অপেক্ষার পর লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছে লিভারপুল। এই মুহূর্তে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল যেমন খেলছে, তাতে ইংল্যান্ডে তাদের রাজত্ব আরও বেশ কয়েক মৌসুম চলতে পারে বলেও ভবিষ্যৎবাণী করেছেন কেউ কেউ।  ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ ওলে গানার সোলশার অবশ্য ঠিক তা মনে করেন না। লিভারপুলের অনন্য অর্জনে ক্লাবটিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি, তবে সঙ্গে এও বলে দিয়েছেন লিভারপুল যতই ভালো খেলুক না কেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের ২০ মৌসুমে ১৩ শিরোপা জয়ের মতো ‘দীর্ঘমেয়াদি সাফল্যে’র নজির গড়া কঠিন হবে। 

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলার সময় ফার্গুসনের অধীনে ৬ বার লিগ শিরোপা জেতা সোলশারের মতে, “স্যার অ্যালেক্সের সময়ে আমরা যেভাবে শিরোপা জিতেছি, সেটার পুনরাবৃত্তি করা কারও জন্য সহজ হবে বলে আমারা মনে হয় না।”


    অবশ্য ইউনাইটেডের হয়ে ১৯৯৩ সালে ফার্গুসনের প্রথম লিগ শিরোপা জেতার আগে ২৬ বছর ধরে লিগ শিরোপা চলছিল ওল্ড ট্রাফোর্ডে। সেই খরা কাটিয়ে এরপর প্রিমিয়ার লিগ যুগে সবচেয়ে বেশিবার লিগ জেতা দলে পরিণত করেন তিনি। ইউনাইটেডের আরেকটি লিগ শিরোপার আগে সেই ফার্গুসন-পূর্ব যুগের শিরোপা খরার পুনরাবৃত্তি চান না সোলশার, “স্যার অ্যালেক্স জানতেন কীভাবে শীর্ষে থাকতে হয়। এখন আমাদের সামনে চ্যালেঞ্জ, যাতে আরেকটি লিগ শিরোপা জিততে ২৬ বছর অপেক্ষা করতে না হয় সেটি নিশ্চিত করা। দ্রুতই আবারও শিরোপা জিততে আমরা আমাদের সবটা দিয়ে চেষ্টা করব।”

    লিভারপুলকে অভিনন্দন জানাতে গিয়ে নিজেদের ব্যর্থতার জন্যও দুঃখ করেছেন ইউনাইটেড ম্যানেজার, “প্রিমিয়ার লিগ বা চ্যাম্পিয়নশিপ জেতা প্রতিটি দলই যোগ্য এবং প্রশংসার দাবিদার। এই লিগ জয় করা বেশ কঠিন, তাই ক্লপ এবং তার খেলোয়াড়দের অভিনন্দন। যখনই নিজের দল ছাড়া অন্য কোনও দলকে ট্রফি জিততে দেখবেন তখন খারাপ লাগাটাই স্বাভাবিক। তবে আমরা আবারও শিরোপা জয়ের ধারায় ফিরতে চাই, এটাই আমাদের চ্যালেঞ্জ।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন