• বুন্দেসলিগা
  • " />

     

    জার্মান কাপ জিতে ডাবল পূরণ করলো বায়ার্ন মিউনিখ

    ফুলটাইম
    বেয়ার লেভারকুসেন ২-৪ বায়ার্ন মিউনিখ


    বুন্দেসলিগার শিরোপা উঁচিয়ে ধরার ৭ দিন পর ডিএফবি পোকালের শিরোপাও উঁচিয়ে ধরল বায়ার্ন মিউনিখ। রবার্ট লেভানডফস্কির জোড়া গোলে বেয়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে ফাইনালটা শেষ পর্যন্ত সহজই হয়েছে বাভারিয়ানদের। রেকর্ড ২০তম বারের মতো জার্মান কাপের শিরোপা ঘরে তুলেছে তারা।  মৌসুমের ডাবল জিতে এখন বায়ার্নের অপেক্ষা আগামী মাসের চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য।

    ডেভিড আলাবা আর সার্জ গ্যানাব্রির প্রথমার্ধের দুই গোলে বার্লিনের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বিরতির আগেই শক্ত অবস্থানে চলে গিয়েছিল বায়ার্ন। এরপর লেভানডফস্কি ৫৯ মিনিটে করেন ম্যাচের প্রথম গোল। ম্যানুয়েল নয়্যারের দেওয়া লং বল নিয়ন্ত্রণে এনে ৩০ গজ দূর থেকে শট করেছিলেন লেভানডফস্কি। লেভারকুসেন গোলরক্ষকও ছিলেন না সতর্ক। সেখান থেকেই মৌসুমের ৫০ তম গোল পেয়ে যান পোলিশ স্ট্রাইকার।
     


    ৮৯ মিনিটে এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে চিপ করে দ্বিতীয় গোলটি করেন লেভানডফস্কি। এর আগে অবশ্য বেন্ডার ৬৩ মিনিটে লেভারকুসেনের হয়ে এক গোল শোধ দিয়েছিলেন। যোগ করা সময়ে পেনাল্টি থেকেও কাই হাভার্টজ লেভারকুসেনের হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন। তবে শক্তিশালী বায়ার্নের সামনে আর সেসব কোনো কাজে আসেনি লেভারকুসেনের।

    লেভারকুসেনের অপয়া ফাইনালের ধারাটা তাই এই ম্যাচের পর বাড়ল আরও। চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল, ৩ জার্মান কাপ ফাইনালসহ ৫ বার বুন্দেসলিগায় দ্বিতীয় হওয়া ক্লাবটি সবশেষ শিরোপা জিতেছিল ১৯৯৩ সালে।

    এই ম্যাচের পর অবশ্য দুই দলের কারই মৌসুম ফুরিয়ে যাচ্ছে না। চেলসিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পথে এক ধাপ দিয়ে রেখেছে বায়ার্ন মিউনিখ। ৪৪ ম্যাচে ৫১ গোল করা লেভানডফস্কির সামনে ট্রেবল পূরণ করার পথও খোলা। আর লেভারকুসেন তাদের 'দুর্ভাগা' বদনাম ঘোচানোর আরেকটি সুযোগ পাবে এবারই। ইউরোপা লিগে এখনও টিকে আছে তারা। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন