• ফর্মুলা ওয়ান
  • " />

     

    স্প্যানিশ গ্রাঁ প্রিঃ বার্সেলোনায় হ্যামিল্টনের দাপট, ভেটেলের দুঃসাহস

    বার্সেলোনা-কাতালুনিয়া সার্কিটে সহজ জয় তুলে নিলেন লুইস হ্যামিল্টন। এই মৌসুমের ৬টি রেসে এটা তাঁর চতুর্থ জয়। ক্যারিয়ারের ১৫৬তম পোডিয়াম ফিনিশ দিয়ে ফরমুলা ওয়ানের কিংবদন্তী মাইকেল শুমাখারের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গেলেন হ্যামিল্টন। তাঁর সামনে শুমাখারের আরো দুইটি রেকর্ড। ফরমুলা ওয়ানের সর্বকালের সেরা মাইকেল শুমাখারের ৯১টি জয়ের রেকর্ড থেকে আর মাত্র ৩টি জয় পিছিয়ে হ্যামিল্টন। এবারের চ্যাম্পিয়নশিপে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যাক্স ভারস্টাপেন থেকে ৩৭ পয়েন্ট এগিয়ে আছেন হ্যামিল্টন। বড় কোন দুর্ঘটনা না ঘটলে এবারের ফরমুলা ওয়ানের চ্যাম্পিয়নশিপও তাঁর হাতেই উঠছে এমনটাই ধরে নেওয়া যায়। এবারের শিরোপা জিতলে ফরমুলা ওয়ানের শিরোপার দিক থেকেও ফেরারির কিংবদন্তী জার্মানের ৭টি শিরোপার রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন এই ব্রিটিশ রেসার। 

    হ্যামিল্টন জিতেছেন তাঁর স্বভাবসুলব দাপটের সাথে। পোল পজিশান এবং সব ল্যাপে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করা রেড বুলের ম্যাক্স ভারস্টাপেনের থেকে ২৪ সেকেন্ড আগেই রেস শেষ করেছে তাঁর মার্সিডিজ ডব্লু১১। বার্সেলোনাতে হ্যামিল্টন এতই নিখুঁত ড্রাইভ করেছেন, এতটাই দুরন্ত গতিতে যে শেষ ল্যাপে গিয়ে ৫ম পজিশান পর্যন্ত সবাইকে পেছন থেকে এসে দ্বিতীয়বার পিছে ফেলেছেন। রেস শেষ করে হ্যামিল্টন বলেছেন, তিনি এমনই ঘোরের মাঝে চলে গিয়েছিলেন যে কখন শেষ ল্যাপ শেষ করেছেন সেটা টেরই পান নি। ওদিকে আগেরদিনের কোয়ালিফাইং এ গ্রিড ২ তে শেষ করলেও বাজে স্টার্টের কারণে শুরুতেই পিছিয়ে পড়েন হ্যামিল্টনের মার্সিডিজের টিমমেট ভ্যালটেরি বোটাস। ৫ম অবস্থান থেকে ধীরে ধীরে রেসের ৩য় অবস্থানে ফিরে আসেন এই ফিনিশ রেসার। তবে রেড বুলের ডাচ তরুণ ম্যাক্স ভারস্টাপেনের দৃঢ়তা এবং চমৎকার পারফরমেন্সের কারণে এর বেশি আর এগোতে পারেন নি বোটাস। বোটাসের একমাত্র সান্ত্বনা ছিল অন্তিম ল্যাপে দ্রুততম ল্যাপ টাইমিং এর জন্য বাড়তি পয়েন্ট। ম্যাক্স বার্সেলোনাতেও চমৎকার ড্রাইভিং করেছেন কিন্তু হ্যামিল্টন এবং হ্যামিল্টনের মার্সিডিজকে ধরাটা তাঁর আয়ত্তের বাইরে ছিল। দ্বিতীয় অবস্থান নিয়ে তাঁর বা তার রেড বুল দলের কারোই খুব একটা খেদ থাকার কথা না।  

    শীর্ষ তিনজনের মাঝে খুব একটা লড়াই না হলেও, পয়েন্ট পাবার জন্য বাকিদের মাঝে বেশ জমজমাট প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে গোটা রেস জুড়েই। চতুর্থ ও পঞ্চম অবস্থানে শেষ করেছেন রেসিং পয়েন্টের দুই টিম মেট সার্জিও পেরেজ এবং লান্স স্ট্রোল। তবে পেনাল্টির কারণে শেষ পর্যন্ত চতুর্থ হয়েছেন স্ট্রোল আর পঞ্চম স্থান পেয়েছেন পেরেজ। হোম গ্রাউন্ডে ৬ষ্ঠ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ম্যাকলারেনের কার্লোস সাইঞ্জকে। ইঞ্জিনের সমস্যার আগে রেসের মাঝামাঝি সময়েই রেস থেকে সরে আসতে হয়েছে ফেরারির শার্ল লেক্লেরকে। ১২তম পজিশান থেকে শুরু করলেও ফেরারির ঝান্ডা উঁচিয়ে রেখেছিলেন সেবাশ্চিয়ান ভেটেলই। বার্সেলোনার এই গরমের মাঝে নরম টায়ারেই ৩৮ ল্যাপ শেষ করেছেন এই জার্মান রেসার। এই সাহসী পারফরমেন্সের জন্য ৭ম হওয়ার পরও ভেটেল পেয়েছেন ড্রাইভার অফ দা ডে’র খেতাব। 

    টানা ছয়টি রেসের পর এবার রেসারদের একটু হাঁফ ছাড়ার অবকাশ মিলবে। স্পা-ফ্রাঙ্করশাম্পস সার্কিটে বেলজিয়ান গ্রাঁ প্রি দিয়ে ফরমুলা ওয়ান ফিরবে দুই সপ্তাহ পর। ফ্রাঙ্করশাম্পস সার্কিট ফেরারির জন্য সবসময়ই সৌভাগ্য বয়ে এনেছে ফেরারির কিংবদন্টি শুমাখার, রাইকোনেন এবং ভেটেলের পছন্দের সার্কিট এটা। গত মৌসুমেও ফেরারির শার্ল লেক্লের জিতেছিলেন বেলজিয়ামে। হ্যামিল্টন বেলজিয়ামে তাঁর তৃতীয় জয় তুলে নিতে পারেন কিনা সেটা আগস্টের ৩০ তারিখই দেখা যাবে। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন