• অস্ট্রেলিয়ার ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ হারের জন্য দীর্ঘ বিরতিকে দুষছেন স্টার্ক

    করোনার পর মাঠে নেমেই প্রথম সিরিজ হেরে গেছে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের সঙ্গে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুটিতে হেরে সিরিজ খুইয়েছে তারা। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে তবু প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়তে পেরেছিল অজিরা, দ্বিতীয়টিতে দাঁড়াতেই পারেনি ইংলিশদের সামনে। অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্কের মতে, দীর্ঘ বিরতির কারণেই অস্ট্রেলিয়াকে ভুগতে হচ্ছে।

    স্টার্কের কথাটা অবশ্য ফেলে দেওয়ার উপায় নেই। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই সিরিজের আগে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি টেস্ট এবং একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে। আর তাই করোনার বিরতির পর আবার নিয়মিত খেলার ধাঁচে ফিরে আসতে অন্তত অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে এগিয়ে ইংল্যান্ড।


    অজিদের হটিয়ে শীর্ষে ইংলিশরা

    সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি জিতে ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে উঠে গেছে। সিরিজে তাদের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার দখলেই এতদিন ছিল র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান।


    অবশ্য এটিকে হারের অজুহাত হিসেবে দাঁড় না করালেও বড় কারণ হিসেবে দেখছেন স্টার্ক, “কোনো অজুহাত দিচ্ছি না। তবে পাঁচ মাস ক্রিকেট ছাড়া থাকার পর ফিরে আসাটা সহজ নয়। নেটে অথবা সেন্টার উইকেটে অনুশীলন করে আন্তর্জাতিক ম্যাচের ভাবটা পাওয়া যায় না। আর টি-টোয়েন্টি অনেক ছোট দৈর্ঘ্যের খেলা, ক্ষুদ্র মুহূর্তগুলোই আমাদের বেশি ভুগিয়েছে। আমরা যেভাবে খেলতে চাই সেভাবে খেলতে পারছি না। ম্যাচ খেলার সঙ্গে সেই ছন্দটা আসবে।”
     


    সিরিজের শেষ ম্যাচের আগে ভুলগুলো শুধরে নিতে চান স্টার্ক, “আশা করি, তৃতীয় ম্যাচের আগে ভুলগুলো শুধরে নিতে পারব। আর এরপর ওয়ানডে খেলব আমরা, সেখানে দেখিয়ে দিতে চাই যে, আমরা গেমটাইম পেয়েছি, এখন আমাদের পরিকল্পনাগুলো আগের চেয়ে ভালোভাবে প্রয়োগের পালা।”


    শেষ ম্যাচে নেই বাটলার

    'পারিবারিক কারণে' অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে খেলবেন না দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডে জয়ের নায়ক জস বাটলার। ওয়ানডে সিরিজে অংশ নিতে ম্যানচেস্টারে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন তিনি। তবে এর আগে কোভিড-১৯ পরীক্ষার করা হবে তার। পারিবারিক কারণে এ সিরিজে আগে থেকেই নেই বেন স্টোকস। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজেই স্কোয়াড ছেড়ে অসুস্থ পিতার পাশে থাকতে নিউজিল্যান্ড গেছেন তিনি।


    এখন পর্যন্ত সিরিজের দুই ম্যাচে ৭ ওভার বোলিং করে ৫৫ রান খরচায় মোটে ১ উইকেট পেয়েছেন স্টার্ক। তবে দুই ম্যাচে নিজের বোলিংয়ে ধারাভিক উন্নতি পরখ করেছেন এই পেসার, “বোলিং নিয়ে আমার পরিকল্পনা একেবারে সাদামাটা। প্রথম ম্যাচে ভালো বোলিং করতে পারিনি। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে দুই-একটি বল ছাড়া বাকি সবগুলোই ভালো হয়েছে।”

    ৮ সেপ্টেম্বর সাউদাম্পটনের রোজ বোলে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি খেলতে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন