• নেশনস কাপ
  • " />

     

    দুর্দান্ত রোনালদোর সেঞ্চুরিতে সুইডেনকে হারালো পর্তুগাল

    ফুলটাইম
    সুইডেন ০-২ পর্তুগাল


    পঁচিশ গজ দূর থেকে ফ্রি কিক পেয়েছিল পর্তুগাল। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো গোলের সেঞ্চুরি পূরণ করতে এর চেয়ে যুতসই সুযোগ কমই পেতেন। ডান পায়ে মারলেন ফ্রি-কিক, সুইডেনের মানবদেয়াল টপকে গোলরক্ষককে স্তব্ধ করে সেটা জড়াল ডান দিকের নেটে। বল মেরেই রোনালদো বুঝেছিলেন গোলে পরিণত হতে যাচ্ছে তার শট। এরপর স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে আকাশে উড়াল দিলেন, আবার মাটিতে নেমে এলেন। তার আগেই পর্তুগালের হয়ে গোলের সেঞ্চুরি পূরণ হয়ে গেল রোনালদোর।  ৭২ মিনিটে আরও একটি দুর্দান্ত গোল করলে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন পর্তুগিজ অধিনায়ক। তবে সবকিছু ছাপিয়ে গেছে রোনালদোর ইতিহাস গড়া রেকর্ডে। ইতিহাসের মাত্র দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে জাতীয় দলের হয়ে গোলের সেঞ্চুরি পূরণ করেছেন রোনালদো। ইরানের আলী দাইয়ির সর্বোচ্চ ১০৯ গোলের রেকর্ড ছুঁতে রোনালদোর দরকার আর ৮ গোল।


    গোলের সেঞ্চুরি পূরণ করতে রোনালদো খেললেন ১৬৫ ম্যাচ। আলি দাইয়ি ১০৯ গোল করেছিলেন ১৪৯ ম্যাচে। তার রেকর্ডটি অনেকদিন ধরেই ছিল ধরা ছোঁয়ার বাইরে। ফেরেঙ্ক পুসকাসের ৮৪ গোলের রেকর্ড রোনালদো বহু আগেই পার করেছিলেন। এখন দাইয়ির সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ছোঁয়াটা রোনালদোর জন্য সময়ের ব্যাপারই। রোনালদোর বয়স এখন ৩৫। এ বছর অক্টোবর ও নভেম্বরে আরও চারটি ম্যাচ খেলবে পর্তুগাল। পরের বছর মার্চে বিশ্বকাপ বাছাই, এরপর ইউরোও আছে জুন নাগাদ। প্রায় এক বছর ৯৯ তে অপেক্ষা করার পর দাইয়ির রেকর্ড ভাঙতে তাই খুব বেশি সময়ও হয়ত লাগবে না রোনালদোর!

    নেশনস লিগে পর্তুগালের আগের ম্যাচে খেলেননি রোনালদো। চোট কাটিয়ে ফিরেছিলেন সুইডেনের বিপক্ষে। স্টকহোমে রোনালদো, হোয়াও ফেলিক্স, বের্নার্দো সিলভারা একসঙ্গে শুরু করলেও ক্রোয়েশিয়া ম্যাচের মতো দাপট দেখাতে পারছিল না পর্তুগাল। বরং সুইডেন বেশ কয়েকটি আক্রমণ সাজিয়ে পর্তুগালকে কাউন্টার অ্যাটাকে খেলতে বাধ্য করে যাচ্ছিল। এর ওপর সিলভা চোট নিয়ে মাঠ ছাড়লে খানিকটা ঝামেলাতেই পড়তে হয় ফার্নান্দো সান্তোসের দলকে।

    রোনালদোর ফ্রি-কিক গোলের আগে পর্তুগাল অবশ্য দুইটি ভালো সুযোগও পেয়েছিল। প্রথমটি পেয়েছিলেন পেপে। দূরের পোস্ট থেকে জালে বল জড়াতে পারেননি তিনি। পরে রোনালদোই গোলরক্ষক রবিন ওলসেনের কাছের পোস্টে করা সেভে আটকে যান। বিরতির ঠিক আগে গুস্তাভ সেভেনসন হোয়াও মুটিনহোকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়ার পর সুইডেন পরিণত হয় দশ জনের দলে। ওই ফ্রি-কিক থেকেই সরাসরি বলে জাল জড়ান রোনালদো।

    ক্যারিয়ারের ৫৭ তম আর পর্তুগালের হয়ে দশম ফ্রি-কিক গোলের পরও রোনালদোকে আর থামাতে পারেনি সুইডেন। চোট কাটিয়ে ফিরে ৮১ মিনিট পর্যন্ত মাঠে ছিলেন রোনালদো। এর মাঝে আরেকবার নিজের অতিমানবীয় রেকর্ডটায় শান দিয়েছেন তিনি। ৭২ মিনিটে রোনালদো দ্বিতীয় গোল করেছেন বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আরেকটি দারুণ শটে। সে দফায় বাম পাস থেকে পাওয়া পাসে বক্সের কাছাকাছি জায়গা থেকে পায়ের শটে টপ কর্নারে বল জড়িয়েছেন রোনালদো। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন