• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    বদলে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট পদ্ধতি, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের ন্যূনতম বয়স

    ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট পদ্ধতি বদলে ফেলছে আইসিসি। কোভিড-১৯ এর কারণে অনেকগুলি ম্যাচ/সিরিজ না হওয়ার পর ক্রিকেট কমিটির পরামর্শে এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছে তারা। সঙ্গে এক বিবৃতিতে আইসিসি জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এখন ১৫ বছরের নিচে কেউ অংশ নিতে পারবে না। 

    কোভিড-১৯ মহামারিতে স্থগিত হয়ে গেছে বেশ কিছু টেস্ট ম্যাচ ও সিরিজ, যেগুলো ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্ভুক্ত ছিল। বাংলাদেশ যেমন এখন পর্যন্ত খেলেছে ভারতের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ, পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি। তবে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ স্থগিত হয়ে গেছে তাদের। 

    এখন পর্যন্ত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এ সাইকেলে প্রায় ৫০ শতাংশ খেলা হয়েছে। আইসিসির মতে, ২০২১ সালের মার্চে উইনডো শেষ হওয়ার আগে প্রায় ৮৫ শতাংশ খেলা হবে। আগের নিয়ম অনুযায়ী, কোনো ম্যাচ না হলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে দুই দলের ক্ষেত্রেই সেটিকে ড্র হিসেবে ধরে নেওয়া হবে। তবে বদলে যাওয়া নিয়মে এখন দেখা হবে একটা দল যে পরিমাণে ম্যাচ খেলেছে, সেখানে কতো পয়েন্ট ছিল, এবং তারা কতো পেয়েছে। এই শতকরা হিসেবে যে এগিয়ে থাকবে, টেবিলেও এগিয়ে থাকবে সেই দল। 

    যেমন বদলে যাওয়া নিয়মের পর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেছে অস্ট্রেলিয়া। ৩৬০ পয়েন্ট নিয়ে আগে সবার ওপরে ছিল ভারত, ২৯৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়া তিনটি সিরিজ খেলেছে, যেখানে ৩৬০ পয়েন্ট ছিল, ফলে তারা পেয়েছে শতকরা ৮২.২ পয়েন্ট। অন্যদিকে ৪৮০ পয়েন্টের মাঝে ভারতের জন্য এই হার ৭৫%। 

    এর আগে যেসব ম্যাচ বা সিরিজ হয়নি, সেসবের ক্ষেত্রে পয়েন্ট ভাগাভাগির কথা ভেবেছিল আইসিসি। তবে বোর্ড মিটিংয়ের পর সেদিকে না গিয়ে এই নতুন পয়েন্ট পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। 

    বোর্ড মিটিংয়ের পর এসেছে আরও কিছু নতুন সিদ্ধান্ত-- 

    ন্যূনতম বয়স 

    অ-১৯ থেকে শুরু করে ছেলে ও মেয়েদের যে কোনো পর্যায়ের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এখন আর যে কোনও বয়সী ক্রিকেটার খেলতে পারবেন না। আইসিসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কমপক্ষে ১৫ বছর বয়স হতে হবে তার। তবে ব্যতিক্রমী কোনও ঘটনার ক্ষেত্রে এর চেয়ে কম বয়সী ক্রিকেটারকে শীর্ষপর্যায়ে খেলার অনুমতি দিতে পারে আইসিসি। তবে সেক্ষেত্রে “খেলোয়াড়ের অভিজ্ঞতা, মানসিক বিকাশ এবং সুস্বাস্থ্য এমন হতে হবে, যাতে তারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের চাহিদা পূরণ করতে পারে।” 

    পিছিয়ে যাচ্ছে মেয়েদের বিশ্বকাপ

    ২০২২ সালের আইসিসি উইমেনস টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে যাচ্ছে ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে। এর আগে ২০২১ সালের উইমেনস বিশ্বকাপ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল ২০২২ সাল পর্যন্ত, ফলে সে বছর কমনওয়েলথ গেমসসহ তিনটি বৈশ্বিক ইভেন্ট হয়ে যাচ্ছিল। ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল নভেম্বরে। 

    এছাড়াও দুর্নীতিবিরোধি কোডে ‘বহিরাগত ব্যক্তি’র ক্ষেত্রে নতুন নীতি গ্রহণ করেছে আইসিসি। এখন থেকে যে কোনও ব্যক্তির বিপক্ষেই দুর্নীতির চেষ্টার অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে নিষেধাজ্ঞা দিতে পারবে আইসিসি।
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন