• ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফর ২০২১
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ আসা হচ্ছে না রোমারিও শেফার্ডের

    করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় বাংলাদেশ সফরে আসছেন না ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার রোমারিও শেফার্ড। তার জায়গায় দলে নেওয়া হয়েছে ২৪ বছর বয়সী পেসার কিওন হারডিংকে। 

    সফরে আসার আগে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রটোকল অনুযায়ী গত ২ জানুয়ারি বাংলাদেশ সফরের স্কোয়াডে থাকা সবার কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হয়েছিল। গায়ানায় নিজের শহরেই পজিটিভ ফল আসে শেফার্ডের। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের দেওয়া এক বিবৃতি অনুযায়ী, গায়ানাতেই আইসোলেশনে থাকতে হবে শেফার্ডকে, এবং সে আইসোলেশনের ব্যপ্তি ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে ভ্রমণের যাত্রার তারিখ। 


    কিওন হারডিং (বাঁয়ে), ইংল্যান্ড সফরে রিজার্ভ বোলার ছিলেন তিনি/ক্রিকেট উইন্ডিজ


    অবশ্য শেফার্ড ছাড়া এই সফরের স্কোয়াডে থাকা সবার কোভিড-১৯ টেস্টের ফল প্রথমদফা নেগেটিভ এসেছে বলে নিশ্চিত করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট। সফরে আসার আগে বুধবার দ্বিতীয়দফা সবার টেস্ট করানো হয়েছে। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ এসে পৌঁছানোর কথা ১০ জানুয়ারি, এরপর কোয়ারেন্টিন শেষ করে ১৮ জানুয়ারি সাভারের বিকেএসপিতে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে তারা। 

    কোভিড-১৯ সংক্রান্ত শঙ্কায় এমনিতেই এ সফরে আসছেন না টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডার, সীমিত ওভারের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডসহ ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ১০ সিনিয়র ক্রিকেটার। 


    শেফার্ডের ছিটকে যাওয়ার কারণে তাই আরেকটু অভিজ্ঞতা হারালো তারা। ২৬ বছর বয়সী শেফার্ড এখন পর্যন্ত খেলেছেন ৮টি প্রস্তুতি ম্যাচ। তার জায়গায় নেওয়া হারডিংয়ের আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়নি এখনও। গত বছর ইংল্যান্ড সফরে রিজার্ভ হিসেবে ছিলেন তিনি। 

    হারডিংকে দিয়ে ওয়ানডে স্কোয়াডে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ক্রিকেটারের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ৯ জনে। এ স্কোয়াডে তাদের অধিনায়ক জেসন মোহাম্মেদ শেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন ২০১৮ সালে। 

    বাংলাদেশ সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে স্কোয়াড
    জেসন মোহাম্মেদ, সুনিল আমব্রিস, এমক্রুমাহ রোনার, জশুয়া ডা সিলভা, জামার হ্যামিল্টন, কেমার হোল্ডার, আকিল হোসেইন, আলজারি জোসেফ, কাইল মেয়ার্স, আন্দ্রে ম্যাকার্থি, কিওর্ন ওটলি, রভম্যান পাওয়েল, রেমন রেইফার, নহেইডেন ওয়ালস জুনিয়র, কিওন হারডিং  

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন