• ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ২০১৯-২০
  • " />

     

    আবারও অনিশ্চয়তায় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, 'সম্ভাবনা ক্ষীণ'

    আবারও অনিশ্চয়তায় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, 'সম্ভাবনা ক্ষীণ'    

    বাংলাদেশের করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতিতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়ার সম্ভাবনা ‘খুবই ক্ষীণ’ বলে জানিয়েছেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন। ৬ মে থেকে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে দুই দফায় শুরু হওয়ার কথা ছিল প্রিমিয়ার লিগ। 

    ২০২০ সালের মার্চে সে মৌসুমের এক রাউন্ড পরই করোনাভাইরাস মহামারিতে স্থগিত হয়ে গিয়েছিল এই লিস্ট ‘এ’ টুর্নামেন্ট। এরপর এ বছরের মার্চে সিসিডিএম (ক্রিকেট কমিটি ফর ঢাকা মেট্রোপলিস) জানিয়েছিল, মে মাস থেকে দুটি উইন্ডোতে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে শুরু হবে সেটি। তবে এ মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে কোভিড-১৯ এর সেকেন্ড ওয়েভে আবারও লকডাউন দেওয়া হয় বাংলাদেশে, যদিও সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ২৮ এপ্রিলের পর শিথিল করা হবে সেটি। 

    তবে এখনকার পরিস্থিতিতে লিগ আয়োজনের সম্ভাবনা খুবই কম দেখছেন পাপন, “এখন যে পরিস্থিতি আছে তাতে প্রিমিয়ার লিগ মাঠে গড়ানোর খুবই কঠিন। কারণ যে পরিস্থিতি তাতে মাঠে খেলা ফেরানো কোনভাবেই উচিত হবে না।” 

    “যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা বায়ো-সিকিউর বলয় নিশ্চিত করতে না পারছি ততক্ষণ পর্যন্ত খেলাটা মাঠে গড়ানো একটু কঠিন। সেখানে একটা দল হোক বা দশটা। যদিও বিসিবি চেষ্টা করে যাচ্ছে। ওরা যদি আমাকে মানাতে পারে যে জৈব সুরক্ষা বলয়ে ওরা খেলাটা চালাতে পারবে তাহলে আমরা খেলব। আমার কাছে মনে হচ্ছে সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ”, সাংবাদিকদের বলেছেন তিনি। 

    এর আগে গত ২ এপ্রিল দুই রাউন্ডের পর স্থগিত করা হয়েছিল জাতীয় ক্রিকেট লিগও। মাঝে এক বছর না হওয়া প্রথম শ্রেণির এই টুর্নামেন্টের এ আসর শুরু হয়েছিল গত ২২ মার্চ। যেটি বায়ো-সিকিউর বলয়ে হওয়ার কথা থাকলেও কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন