• শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফর ২০২১
  • " />

     

    কোড অফ কন্ডাক্ট ভঙ্গ করে জরিমানা গুণলেন তামিম, সঙ্গে ডিমেরিট পয়েন্ট

    কোড অফ কন্ডাক্ট ভঙ্গ করে জরিমানা গুণলেন তামিম, সঙ্গে ডিমেরিট পয়েন্ট    

    আইসিসির কোড অফ কন্ডাক্ট ভঙ্গের দায়ে জরিমানা করা হয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবালকে। লেভেল ওয়ান ধরনের এই অসদাচরণের জন্য তামিমের ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করেছেন ম্যাচ রেফারি নিয়ামুর রশিদ রাহুল, সঙ্গে একটি ডিমেরিট পয়েন্টও দিয়েছেন তিনি। 

    তৃতীয় ওয়ানডের দিন বাংলাদেশের ব্যাটিং ইনিংসে ঘটেছে এ ঘটনা। দুশমন্থ চামিরার অফস্টাম্পের বাইরের বল ব্যাট বাড়িয়েছিলেন তামিম, শ্রীলঙ্কানদের আবেদনে অন-ফিল্ড আম্পায়ার শরফউদ্দৌলা ইবনে শহিদ সৈকতের দেওয়া আউটের সিদ্ধান্ত তিনি রিভিউ করেছিলেন সঙ্গে সঙ্গেই। তবে আল্ট্রা-এজে যখন স্পাইক দেখায়, তখন বল ছিল তামিমের ব্যাটের একদম কাছে, আবার সঙ্গে সঙ্গে ব্যাটও আঘাত করেছিল মাটিতে। ফলে টিভি আম্পায়ার অন-ফিল্ড সিদ্ধান্ত ওভারটার্ন করেননি।

    ম্যাচ শেষে তামিম বলেছিলেন, “খুবই হতাশার। আমি শতভাগ নিশ্চিত ছিলাম আমার ব্যাটে বল লাগেনি। দুর্ভাগ্যজনক যে আমার ব্যাটের পাশ দিয়ে বল যাওয়ার সময় ব্যাট মাটিতে লাগে। এটাও আম্পায়ারের জন্য প্রায় অসম্ভব ছিল ওভারটার্ন করা। অনফিল্ড আম্পায়ার যদি আউট না দিত তাহলে ভিন্ন ঘটনা হতে পারত। কিন্তু আমি একশ ভাগ নিশ্চিত যে আমার ব্যাটে বল লাগেনি।” 



    তবে সে সময় তামিম সহজভাবে নিতে পারেননি সে সিদ্ধান্ত। মাঠ ছাড়ার সময় তার মুখভঙ্গিতে অসন্তোষের ছাপ ছিল স্পষ্ট। আইসিসি বলছে, সে সময় ‘তামিম অনুপযোগী ভাষা ব্যবহার করেছেন’। আইসিসি কোড অফ কন্ডাক্টের ২.৩ ধারা ভঙ্গ করেছেন তিনি। এ ধরনের অপরাধে সর্বনিম্ন শাস্তি ভর্ৎসনা, আর সর্বোচ্চ ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা, সঙ্গে একটি বা দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট। 

    সাধারণত দুই বছরের সময়ে একটা নির্দিষ্ট সংখ্যক ডিমেরিট পয়েন্ট পরিণত হয় সাসপেনশন বা নিষেধাজ্ঞা পয়েন্টে, সেক্ষেত্রে একটা নির্দিষ্ট সংখ্যক ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয় সে ক্রিকেটারকে। অবশ্য গত দুই বছরের মাঝে এটি তামিমের প্রথম ডিমেরিট পয়েন্ট। 

    নিজের অপরাধ এবং ম্যাচ রেফারির দেওয়া শাস্তি মেনে নিয়েছেন বলে আনুষ্ঠানিক শুনানিরও প্রয়োজন পড়েনি তামিমের ক্ষেত্রে। অন-ফিল্ড আম্পায়ার শরফউদ্দৌলার সঙ্গে তানভির আহমেদ, টিভি আম্পায়ার গাজি সোহেল এবং ফোর্থ আম্পায়ার মাসুদুর রহমান তামিমের বিপক্ষে অভিযোগ এনেছিলেন। 

    আগেই সিরিজ জিতলেও আইসিসি ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের অধীনে তৃতীয় ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন