• " />

     

    জাতীয় দলে ফিরছেন মেসি?

    পরপর তিন বছর তিনটি বড় ফাইনালে হার; রাগ-হতাশা-অভিমানে জাতীয় দলের জার্সিটাই তুলে রাখার ঘোষণা দিয়ে বসলেন তিনি। ভক্ত-সমর্থক আমজনতা থেকে শুরু করে দেশের প্রেসিডেন্ট পর্যন্ত সনির্বন্ধ অনুরোধ চালিয়ে গেলেন। তবুও মান ভাঙে নি তাঁর। তবে মেসি ফিরবেনই- এমন বিশ্বাস শুরু থেকেই করে আসছেন বহু অনুরাগী। তাঁদের আস্থার প্রতিদান হয়তো মিললো বলে। আর্জেন্টাইন গণমাধ্যমের খবর, নতুন কোচ এদগার্দো বাউজার সাথেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত কথা বলবেন তিনি।

     

     

    আর্জেন্টিনার শীর্ষস্থানীয় ক্রীড়া দৈনিক ওলে’র বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, মেসির সাথে কথা বলতে আগামী সপ্তাহে বার্সেলোনা যাচ্ছেন বাউজা। আর সে সূত্রে পত্রিকাটির দাবী, মেসি জাতীয় দলে ফিরছেন এটা এখন একরকম নিশ্চিতই। এমনকি আগামী ১ সেপ্টেম্বর উরুগুয়ের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচেই দেখা যেতে পারে তাঁকে।

     

    স্থানীয় আরেক ক্রীড়া দৈনিকের সাথে এক সাক্ষাৎকারে বাউজা মেসির অবসরের নেপথ্য কারণ হিসেবে পরোক্ষভাবে আর্জেন্টিনার সাবেক কোচ টাটা মার্টিনোকে দায়ী করেন। বাউজা বলছেন, এককভাবে মেসির উপর নির্ভরতাই কাল হয়েছে আর্জেন্টিনার জন্য, “চিলির বিপক্ষে ম্যাচটাই দেখুন না, সবসময় চারটা করে খেলোয়াড় তাঁর ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে গেছে। সে খেলার কোনো সুযোগই পায় নি। এভাবে তো আপনি তাঁকে একা ছেড়ে দিতে পারেন না।”

     

    আর সে জন্য মার্টিনোর ছকেই গলদ দেখছেন নতুন কোচ। বলছেন মেসিকে খেলার সুযোগটুকু করে দিতে হবে, “আমাদের খেলাটা তাঁকে ঘিরেই হয়। আর সে কী করতে পারে সেটা তো কারও অজানা নয়। কথা হচ্ছে, সেটুকু তাঁর কাছ থেকে পেতে হলে তাঁকে তো আগে জায়গামতো খেলতে দিতে হবে। আর সেটার জন্য তাঁর সতীর্থদের সহযোগিতাও প্রয়োজন। এককভাবে আমরা মেসির উপর নির্ভর করে থাকতে পারি না।”

     

    তবে এতো কথা বললেও মেসিকে ‘বোঝাতে’ বার্সেলোনা যাচ্ছেন এমনটা মানতে নারাজ বাউজা, “আমি জানি না লোকে কেন শুধু বলছে যে আমি যেন তাঁকে ভালোমতো বুঝাই। আমি তাঁর সাথে ফুটবল নিয়ে কথা বলবো। তারপর না হয় আমরা দেখবো যে সিদ্ধান্ত সে নিয়ে বসে আছে সেটা বদলানোর কোনো সুযোগ আছে কিনা।”

     

    আবেগের বশে মেসির অমন সিদ্ধান্ত নিয়ে বসায়ও কোনো ভুল খুঁজছেন না নতুন কোচ, “ওইরকম অবস্থার মধ্য দিয়ে যারা গেছেন কেবল তাঁরাই তাঁর অভিমানের মর্মটা বুঝতে পারবেন।”