• ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ সিরিজ
  • " />

     

    ইংল্যান্ডের সামনে অসম্ভবের হাতছানি

    ইংল্যান্ডের সামনে অসম্ভবের হাতছানি    

    শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডকে ২৭৩ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ। এশিয়ার মাটিতে এতো রান তাড়া করার রেকর্ড নেই ইংলিশদের। তবে ইংলিশদের আশাবাদী করতে পারে ২০১০ সালে বাংলাদেশ সফরের দ্বিতীয় টেস্ট। এই মিরপুরে হওয়া সে টেস্টে বাংলাদেশের দেয়া ২০৯ রানের লক্ষ্য টপকে গিয়েছিল তারা। আর বাংলাদেশের জন্য আশার কথা মিরপুরে এতো রান তাড়া করার ঘটনা কখনোই ঘটেনি। সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ডটি সেই ইংল্যান্ডের গড়া ২০৯ রানেরই।

    এশিয়ার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ড ২০৯ রানের। তবে একবার নয়, এই কীর্তি ইংল্যান্ড গড়েছে দুবার। প্রথমবার ১৯৬১ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে লাহোরে এই রেকর্ড করে ইংলিশরা। দ্বিতীয় কীর্তিটা মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। সেই ২০৯ রানেরই। ২০১০ সালে অধিনায়ক হিসেবে অ্যালিস্টার কুকের প্রথম সিরিজে বাংলাদেশের দেয়া ২০৯ রানের লক্ষ্য মাত্র ১ উইকেট হারিয়েই পেরিয়ে যায় ইংল্যান্ড। অ্যালিস্টার কুক করেন দুর্দান্ত সেঞ্চুরি। ফলে আশা জাগিয়েও বড় পরাজয়ই জোটে বাংলাদেশের কপালে।

    মিরপুরে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটা বাংলাদেশেরই। মোহাম্মদ আশরাফুলের সেঞ্চুরি ও সাকিব আল হাসানের ৯৬ রানের ওপর ভিত্তি করে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চতুর্থ ইনিংসে ৪১৩ রান করে বাংলাদেশ। কিন্তু দুর্দান্ত লড়াইয়ের পরও শ্রীলঙ্কার দেয়া ৫২১ রানের পর্বত প্রমাণ লক্ষ্য থেকে ১০৭ রান দূরে থাকতেই শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস।

    জিততে হলে ইংল্যান্ডকে মিরপুরে সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ডের পাশাপাশি এশিয়ায় সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ডও গড়তে হবে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন