• উইম্বলডন ২০১৭
  • " />

     

    বার্ডিচকে হারিয়ে স্বপ্নের ফাইনালে ফেদেরার

    কদিন পরেই ৩৬ পূরণ করবেন। তবে যতই সময় যাচ্ছে, রজার ফেদেরার যেন আরও বেশি ধারালো হচ্ছেন। টমাস বার্ডিচকে আজ ৭-৬ (৭-৫), ৭-৬ (৭-৫) ৬-৪ গেমে হারিয়ে পৌঁছে গেছেন আরেকটি উইম্বলডন সেমিফাইনালে, ১৯তম গ্র্যান্ড স্লাম থেকে দাঁড়িয়ে আছেন নিঃশ্বাস ছোঁয়া দূরত্বে।


    চেক প্রজাতন্ত্রের বার্ডিচ অবশ্য আজ সহজে হাল ছেড়ে দেননি। প্রথম দুই সেটে লড়াই করেছেন সমান সমানেই। প্রথম সেটে ব্রেক পয়েন্ট পেয়ে ফেদেরার এগিয়ে গিয়েছিলেন ৪-২ গেমে। কিন্তু সেখান থেকে দারুণভাবে ফিরেছেন বার্ডিচ, নিয়ে গেছেন টাইব্রেকারে। কিন্তু সেখানে একটি সহজ ফোরহ্যান্ড মিস করার খেসারত দিতে হয়েছে, শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে  হেরে গেছেন। 


    পরের সেটেও আগের বারেরই পুনরাবৃত্তি। এবারও দুজনের লড়াই হলো সমান সমানে, ম্যাচটা গড়াল টাইব্রেকারে। এবারও ফেদেরার টাইব্রেকারে হাসলেন শেষ হাসি। শেষ সেটে অবশ্য আর বার্ডিচকে সুযোগ দেননি, একবার ব্রেক করেই তুলির টানে দিয়েছেন শেষ আঁচড়। ১৯৭৪ সালে ৩৯ বছর বয়সী কেন রোজওয়াল উঠেছিলেন উইম্বলডনের ফাইনালে। তার পর ফেদেরারই সবচেয়ে বেশি বয়সে এই কীর্তি গড়লেন। বার্ডিচের সঙ্গে সর্বশেষ সাত ম্যাচের সাতটিতেই জয় পেলেন ফেদেরার। 


     ফাইনালে ফেদেরারের প্রতিপক্ষ সপ্তম বাছাই মারিন চিলিচ। অন্য সেমিফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রের স্যাম কোয়েরিকে ৬-৭ (৬-৮), ৬-৪, ৭-৬ (৭-৩), ৭-৫ গেমে হারিয়ে পৌঁছে গেছেন ফাইনালে। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন