• " />
    X
    GO11IPL2020

     

    ইয়াসিরের প্রথমে দাপুটে শেষ বাংলাদেশের

    বাংলাদেশ এ ৫০ ওভারে ২৮৬/৬ (ইয়াসির ১০২*, সাদমান ৬৮; ম্যাকার্থি ২/৪৫)

    আয়ারল্যান্ড এ ৪৩.৪ ওভারে ২১০ (টেক্টর ৬৬, রনি ৩/৩৮, সানজামুল ২/২৮, ইমরান ২/৪৬)

    ফলঃ বাংলাদেশ ৭৬ রানে জয়ী (সিরিজ ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ)


    সিরিজ জেতার কাজটা সেরে রেখেছিল আগেই। শেষ ম্যাচটা বাংলাদেশ এ দলের জন্য ছিল শুধু বার্তা দেওয়ার। সেই কাজটা করতে পেরেছে ভালোমতোই, ৭৬ রানে আয়ারল্যান্ড এ দলকে হারিয়ে বড় জয় দিয়েই শেষ করেছে সিরিজ। প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চারটিতেই পেয়েছে জয়।

    ম্যাচ জয়ের মূল কাজটা বাংলাদেশ দল সেরে রেখেছে আগেভাগেই। দলে সুযোগ পেয়ে আজও এনামুল হক বিজয় কাজে লাগাতে পারেননি, আউট হয়ে গেছেন ১৩ রান করে। এরপর নাজমুল হোসেন শান্তর সঙ্গে ৪০ রানের জুটিতে হাল ধরেছেন ফর্মে থাকা সাদমান ইসলাম। শান্ত ২৬ রানে আউট হয়ে গেলেও সাদমানের সঙ্গে এরপর ম্যাচটা বাংলাদেশের করে নিয়েছেন ইয়াসির আলী চৌধুরী। দুজন মিলে তৃতীয় উইকেটে যোগ করেছেন ১৩২ রান। সাদমান ৬৮ রানে আউট হয়ে গেলেও ইয়াসির শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ১০২ রানে। লিস্ট এ তে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি করেই মাঠ ছেড়েছেন, ১০২ রানের ইনিংসে ছিল আটটি চার ও পাঁচটি ছয়।

    তবে ইয়াসিরের সাথে বাংলাদেশের রান ২৮৬ পর্যন্ত যাওয়ার কৃতিত্ব তানভীর হায়দারেরও। শেষ দিকে ১৬ বলে ২৬ রান করে ঝড় তুলেছেন এই অলরাউন্ডার।

    এই রান তাড়া করে শুরুতেই হোঁচট খেয়েছে আয়ারল্যান্ড এ, ২৩ রানেই হারিয়ে ফেলেছে ওপেনার টেরিকে। ৩৪ রানে ফর্মে থাকা অধিনায়ক বালবিরনিকে সানজামুল ইসলাম দিলে আরও বিপদেই পড়ে যায় আয়ারল্যান্ড। এরপর টেক্টর ও অ্যান্ডারসন মিলে একটু হাল ধরার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু দুজনের ৯৪ রানের জুটিটা ভেঙে দেন আবু হায়দার রনি। এরপর আয়ারল্যান্ড এ দলের বাকিরা ছিলেন আসা যাওয়ার মিছিলে। শেষ পর্যন্ত ৪৩.৪ ওভারেই অলআউট হয়ে গেছে ২১০ রানে। বাংলাদেশের হয়ে আবু হায়দার রনি ৩৮ রানে পেয়েছেন ৩ উইকেট।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন