• " />

     

    মাঠে মূত্রত্যাগ করে লাল কার্ড দেখলেন গোলকিপার!

     

    ম্যাচের তখন ৮৭ মিনিট। সবাইকে অবাক করে দিয়ে স্যালফোর্ড সিটির গোলকিপার ম্যাক্স ক্রোকম্বকে লাল কার্ড দেখালেন রেফারি। দল, প্রতিপক্ষ কিংবা দর্শক; কেউই বুঝে উঠতে পারছিলেন না কেনও এই কার্ড দেখানো হলো। পড়ে জানা যায়, মাঠে মূত্রত্যাগ করার ‘অপরাধেই’ নাকি ক্রোকম্বকে মাঠ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে!

     

    ইংল্যান্ডের ষষ্ঠ বিভাগের ম্যাচে ব্র্যাডফোর্ড পার্ক এভিনিউয়ের মুখোমুখি হয়েছিল স্যালফোর্ড সিটি। ম্যাচ চলার সময়ই দুবার মাঠের এক কোনায় মূত্রত্যাগ করেছেন ক্রোকম্ব। পার্ক এভিনিউয়ের সভাপতি কলিন বার্কার জানান, তাঁদের বারবার নিষেধ করার পরেও এমনটা করছিলেন ক্রোকম্ব, “তাঁকে দুবার মানা করা হয়েছিল এই ব্যাপারে। কিন্তু তিনি আমাদের কথা না শুনে প্রস্রাব করেছেন মাঠেই। আমি বুঝতে পারছি কেনো তাঁকে এটা করতে হয়েছে, কিন্তু এটা খেলার মাঠ। তিনি এক কোনায় গিয়ে এটা করেছেন, সহকারী রেফারির নজর এড়ায়নি। এজন্যই তাঁকে লাল কার্ড দেখান হয়েছে।”

     

    ম্যাচ শেষে অবশ্য ক্রোকম্ব নিজের ভুল বুঝতে পেরেছেন, “কাউকে কষ্ট দেওয়া কিংবা অসম্মান জানানোর কোনো উদ্দেশ্য আমার ছিল না। আমি ওই সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। দুই ক্লাবের সবার কাছে এবং দর্শকের কাছে ক্ষমা চাইছি।”

     

    ফুটবল মাঠে এরকম ঘটনা অবশ্য নতুন নয়। ২০০৯ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগের আর্সেনাল-স্টুটগার্ট ম্যাচে গোলকিপার জেন্স লেম্যান গোলপোস্টের পেছনে বিজ্ঞাপন বোর্ডের ফাঁকে মূত্রত্যাগ করে সমালোচিত হয়েছিলেন। এই মাসের শুরুতে সিরি আতে প্রতিপক্ষের দর্শককে উদ্দেশ্য করে মূত্রত্যাগ করায় ৫ ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছে চতুর্থ বিভাগের দল তুরিসের কিপার জিওভানি লিবার্তি।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন